দ্বৈরথ থাকলেও দেশের স্বার্থে শুক্রবারের মোদীর সর্বদল বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন মমতা

0
57

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

করোনা নিয়ে এর আগের সর্বদল বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী ডাক না পাওয়ায় নবান্নে সকলের সামনেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মু়খ্যমন্ত্রী। কিন্তু গালোয়ান উপত্যকায় চিনের আগ্রাসী মনোভাবের জবাবে ভারতের নীতি নির্ধারণে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বৃহস্পতিবার ফের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

নবান্ন সূত্রের খবর, এই পরিস্থিতিতে চিনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কের রূপরেখা নির্ধারণের ভিডিও কনফারেন্স বৈঠকে যোগ দেওয়ার বিষয়ে সম্মতি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। সমস্ত দ্বৈরথ সরিয়ে দেশের স্বার্থেই এই সম্মতি বলে জানা গিয়েছে।

mamata banerjee | newsfront.co
ফাইল চিত্র

প্রসঙ্গত, সারা বিশ্বের সঙ্গে করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তে বিপর্যস্ত ভারতবর্ষও। এর মধ্যেই সোমবার রাতে লাদাখের গালোয়ান উপত্যকায় চিনের আগ্রাসী মনোভাব এবং চিনা সেনাবাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে ভারতীয় জওয়ানদের শহিদ হয়ে যাওয়ার ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছে আপামর ভারতবাসীকে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য শুক্রবার সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আমন্ত্রণপত্র পাওয়ার পর লাদাখে ভারত-চিন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে মোদির ডাকা সর্বদল বৈঠককে স্বাগত জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, “দেশকে কেউ আঘাত করুক চাইনা। কেউ আক্রমণ করুন চাই না। সবসময়ই চাই দেশ আগে বাড়ুক। দেশ আগে, তারপর বাকি সব।’

আরও পড়ুনঃ লাদাখে বীর জওয়ানদের বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়ার জন্য কে দায়ী? প্রশ্ন রাহুলের

লাদাখের গালোয়ান উপত্যকায় সেই সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হওয়ার পরেও গালোয়ান উপত্যকা থেকে সেনা সরায়নি চিন। একইসঙ্গে দু’দেশ একে অপরের ওপর আপাত ভাবে মনস্তাত্ত্বিক চাপ তৈরির কৌশল নিয়েছে।

এই পরিস্থিতি শুক্রবারের সর্বদল বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। চিনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক, কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের ভবিষ্যৎ কী হতে চলেছে, তা নিয়ে শুক্রবার বৈঠক হতে চলেছে। সূত্রের খবর, ওই বৈঠকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরামর্শও দিতে পারেন মমতা।

আরও পড়ুনঃ রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে নির্বাচিত ভারত, কৃতজ্ঞ মোদী

বুধবার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ডাকা বৈঠকে বক্তার তালিকায় নাম না থাকায় যোগ দেননি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। ওই সময় নবান্নে চিকিৎসকদের নিয়ে করোনা মোকাবিলার পরবর্তী রণনীতি তৈরি করছিলেন মমতা। পরে সাংবাদিক সম্মেলনে মমতা বলেন, ‘বলে না দেওয়ায় আমার কোনও রাগ নেই। আমরা তৃণমূল স্তরে করোনা মোকাবিলার পরিকল্পনা করেছি।’ তবে এবারে ডাক পেয়ে কিছুটা হলেও খুশি নবান্নের শীর্ষমহল।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here