এনসিআরবি-র রিপোর্টে ‘বাদ’ পশ্চিমবঙ্গ

0
76

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

প্রত্যেক বছরই সারা দেশের অপরাধ তথ্য পাঠানো হয় কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে এবং তার ভিত্তিতে পরের বছর প্রকাশিত হয় ‘ন্যাশানাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো’-র তথ্য পরিসংখ্যান। সারা দেশের কোথায় কোন অপরাধ বেড়েছে বা কমেছে, তা একসঙ্গে উঠে আসে দেশবাসীর চোখের সামনে।

CRB | newsfront.co

কিন্তু চলতি বছরে ২০১৯ সালের গোটা দেশের অপরাধের তথ্যপঞ্জি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনস্থ ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর (এনসিআরবি) তরফে প্রকাশ করার দেখা গিয়েছে, তাতে বেমালুম উধাও হয়ে গিয়েছে ২০১৯ সালের পশ্চিমবঙ্গের তথ্য।

কিন্তু কেন বাদ গেল পশ্চিমবঙ্গের তথ্য পরিসংখ্যান? অপরাধের তথ্য নিয়েও শুরু হয়েছে পারস্পরিক ‘দোষারোপের’ পালা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের তথ্য না মেলায় তাই ২০১৮ সালের পুরনো তথ্য দেওয়া হয়েছে। যদিও রাজ্য প্রশাসনের দাবি, দু’ মাস আগে, ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দিল্লিতে সব তথ্য পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু দিল্লি তা নথিভুক্ত করেনি।

আরও পড়ুনঃ দিলীপ ঘোষের বাইক মিছিলে বেলেঘাটায় বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি পুলিশের

যদিও রাজ্য প্রশাসনের একাংশের মতে, ২০১৮ সালের তুলনায় রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার পরিস্থিতি অনেক বেশি উন্নতি হয়েছে। কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য প্রশাসনের ভাল তথ্য প্রকাশ করলে তাতে বিরোধিতা করতে অসুবিধা হবে বঙ্গ বিজেপির। তাই ইচ্ছা করেই সেই তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

রাজ্য প্রশাসনের আরও দাবি, তথ্য এনসিআরবি পেয়েছিল এবং তার কিছু ব্যাখ্যাও তলব করে। ৭ অগস্ট সেই ব্যাখ্যাও পাঠানো হয়েছিল। এই তথ্য লেনদেন সংক্রান্ত রাজ্য পুলিশ ডিরেক্টরেটে রয়েছে বলেও দাবি করেছেন পুলিশকর্তারা।

আরও পড়ুনঃ রেল কেলেঙ্কারি মামলায় আলিপুর আদালতে চার্জশিটে নাম বাদ মুকুল রায়ের

ভবানীভবন সূত্রের খবর, থানা স্তরে অপরাধের ঘটনার তথ্য জোগাড় করে জেলা ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো (ডিসিআরবি)। সাধারণ ভাবে মার্চ-এপ্রিলের মধ্যেই গোটা বছরের সংগৃহীত তথ্য চলে আসে রাজ্য ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর (এসসিআরবি) কাছে। সেখান থেকে তথ্য যায় এনসিআরবি-র কাছে।

এ বার করোনার জেরে কিছুটা দেরি হলেও জুলাই মাসে তা চলে গিয়েছিল। যদিও অন্য একটি সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনার কারণে এ বছর ৩০ জুনের মধ্যে অপরাধের বিস্তারিত তথ্যপুঞ্জি পাঠানোর দিন দেওয়া হয়েছিল। করোনার কারণে তা আরও ১০ দিন বাড়ানো হয়। অভিযোগ, তা সত্ত্বেও রাজ্য ওই তথ্যপুঞ্জি পাঠাতে পারেনি। তাই সামগ্রিক ভাবে তথ্য প্রকাশে দেরি করা সম্ভব হয়নি।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here