শিক্ষক দিবসে রক্তদান শিক্ষক সমাজসেবীর

0
21

নিজস্ব সংবাদদাতা, মুর্শিদাবাদঃ

অভিনব কায়দায় শিক্ষক দিবস উদযাপন মুর্শিদাবাদ জেলার বিশিষ্ট সমাজসেবী ও শিক্ষক তাজমত সেখের। নিয়মিত রক্তদাতা ও বিভিন্ন সংগঠন পরিচালক তাজমত সেখ পেশায় শিক্ষকতা করেন। অবসরকালীন সময়ে সমাজ সেবামূলক কাজকর্মে লিপ্ত থাকেন।

Blood donation
নিজস্ব চিত্র

শিক্ষকতার পেশায় তিনি স্বনামধন্য। বরাবরের মতোই এদিন বিভিন্ন মাধ্যমে ছাত্রছাত্রী শিক্ষক তাজমত সেখকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে। ছাত্রছাত্রীদের অগাধ স্নেহ ও ভালোবাসাকে সম্মান ও শ্রদ্ধা নিবেদন করতেই উনার আজকের এই রক্তদান। বেলডাঙ্গা থানার কাপাসডাঙ্গা গ্রামের তাজমত সেখ বিভিন্ন রক্তদাতা সংগঠনের সঙ্গে জড়িত। মানববন্ধন, মানবতার পাশে আমরা, অসহায়ের বন্ধু থেকে শুরু করে মুর্শিদাবাদ ব্লাড ফোর্স প্রভৃতি সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ রেখে তিনি বেলডাঙ্গা ও তার আশেপাশে বছরের বিভিন্ন সময়ে রক্তদান শিবির করে থাকেন। ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ মাধ্যমে তিনি যুব সমাজকে রক্তদান এবং নানা সামাজিক ও পরিবেশ সচেতনামূলক কাজে উতসাহ প্রদান করে থাকেন।

স্কুল জীবন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত তিনি নিয়মিত রক্তদান করে চলেছেন। এদিন মুর্শিদাবাদ জেলার দৌলতাবাদ থানার রাফি সেখ নামক এক অসহায় ও দরিদ্র ব্যাক্তি রক্তাল্পতার সুবাদে মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। ডাক্তার চিকিৎসার পর জানিয়ে দেন, রুগীকে সুস্থ করতে হলে এমারজেন্সি এ পজিটিভ রক্তের প্রয়োজন। ব্লাডব্যাংক রক্তশূণ্য। অতপর রুগীর পরিবার রক্তের জন্য চারিদিকে ছোটাছুটি করতে থাকেন। তারা কোনো এক মাধ্যমে মানববন্ধন সম্পাদক মো তারিফ হোসেনের সাথে ফোনে যোগাযোগ করে রক্তের জন্য ডোনার চেয়ে বসেন। অতপর বিষয়টি মো সাফিকুজ্জামান ওরফে ভেলুর মাধ্যমে তাজমত সেখের কাছে খবর পৌছায়।

আরও পড়ুনঃ ক্যান্সার আক্রান্ত শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়ালেন জঙ্গলমহল এলাকার এক শিক্ষক

রক্তদাতা তাজমত সেখ নিজেও বিভিন্ন গ্রুপে রক্তের রিকুইজিশন ফর্মটি শেয়ার করেন। বারংবার ম্যাসেজ শেয়ারের পরেও কিন্তু কোনো রক্তদাতাই এদিন সাড়া দেননি। তাই আর দেরি না করে নিজেই রক্তদান করার তাগিদে স্নেহধন্য মুকলেসুর রহমান কে নিয়ে নিজে বাইক চালিয়ে রাত্রী ৯ টার সময় মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ ব্লাডব্যাঙ্কের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। রাত্রী ১২ টার সময় তারা রুগী রাফি সেখের পরিবারের হাতে এক ইউনিট রক্ত তুলে দিয়ে, বাড়ির দিকে রওনা হন। অতীতে বিভিন্ন নামকরা মিশনে শিক্ষকতা করে থাকলেও, বর্তমানে নওদা থানার বৃন্দাবনপুর সরকারি স্কুলের শিক্ষক তাজমত সেখ।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূলের উদ্যোগে শিক্ষক দিবস উদযাপন জলঙ্গীতে

শিক্ষক দিবসকে স্মরনীয় করে তুলতেই শিক্ষক সমাজসেবী তাজমত সেখ ওরফে জগৎশেঠ এই মহৎ কাজে এগিয়ে আসেন। উনার মতে, “আমরা প্রায়ই রক্তদান করে থাকি। বিভিন্ন শিবির করে থাকি। আজকের এই রক্তদান তেমন কিছু নয়। আমরা বিশ্বাস করি, আমার রক্তে অন্যের প্রান বাঁচতে পারে, একটি পরিবার সুখে থাকতে পারে। প্রতিদিনের মতো আজকেও একজন অসহায় মানুষের মুখের দিকে চেয়েই রক্তদান করলাম।

তাছাড়া আমরা কখনোই ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণ এর মতো শিক্ষক হতে পারিনি বটে, তবে সারাদিন যেভাবে একজন শিক্ষক হিসাবে শিক্ষার্থীদের সম্মাননা পেয়েছি, আর তাদের অনেকেই আমার মতো রক্তদাতা সংগঠন পরিচালনা করে, তাদের প্রতি অগাধ ভালোবাসা ও স্নেহ জানাতে চেয়েছি।” অসহায় মানুষের জীবন বাঁচাতে রক্তদান মহা দান। রক্তদানের বিকল্প নেই।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here