সিমা পুরকাইত,দক্ষিন ২৪ পরগনাঃ
ডায়মন্ড হারবারকে আন্তর্জাতিক মানে নিয়ে যাওয়ার কথা মাথায় রেখে আজ ডায়মন্ড হারবার নদীপাড় সৌন্দর্য্যায়নের জন্য শিলান্যাস করলেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব চিত্র

আন্তর্জাতিক মানে নদীপাড় সৌন্দর্য্যায়নের কাজ শুরু করার জন্য আজ সন্ধ্যায় ডায়মন্ড হারবার পৌরসভা এলাকায় কেল্লার মাঠে শিলান্যাস করেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। নদীপাড় সৌন্দর্য্যায়নের শিলান্যাস করে উনি জানান,প্রথম ফেজে ১২ কোটি টাকা ব্যায়ে দেড় বছরে এই কাজ সম্পূর্ণ করা হবে। নদীপাড়ে কাজ করার সময় নদীর পাড়ে যারা ছোট ছোট দোকান করে ব্যাবসা করছে তাদের তোলা যাবে না।গাছ গুলোকে সংরক্ষণ করতে হবে ,সেগুলি ধ্বংস করা যাবে না।দু -তিনটি মন্দির আছে সেগুলি থাকবে। মন্দির গুলোকে আরও নতুন ভাবে সাজানো হবে।এখানে ছোটদের খেলার পার্ক, হাঁটার জায়গা,বাজার তৈরী করা হবে।নদীর পাড়ে কাজ শেষ হওয়ার পর কেমন হবে,জায়ান্ট স্ক্রিনের মাধ্যামে ডায়মন্ড হারবার বাসির কাছে তা তুলে ধরা হয়।

স্ক্রিনে নদীপার সৌন্দর্যায়নের পূর্বাভাসঃ

শিলান্যাস করে সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রাজ্যে নয় দেশের মধ্যে ডায়মন্ড হারবার লোকসভা এলাকা কাজের নিরিখে প্রথম।বিজেপির উদ্দেশ্যে সাংসদ বলেন, “গুজরাটে তিন কোটি টাকা ব্যায়ে যে মূর্তি তৈরী করেছে। তা না করে দেশ ৮০ শতাংশ মানুষ এখনও ঠিকমতো খেতে পারে না তাদের যদি দিতো তাহলে মানুষের উপকার হতো।

নিজস্ব চিত্র

আমাদের তিন কোটি টাকা দিতে হবে না আমাদের ১ কোটি টাকা দিলে আমরা উন্নয়ন করে দেখিয়ে দেবো। আমরা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করিনা আমরা কাজ করতে চাই।পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী যে কাজ করেছে তা দেখুক কেন্দ্র সরকার আর বাকী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা কী কাজ করছে তা দেখলে বোঝা যাবে আমাদের নেত্রী রাজ্যে কত উন্নয়ন করেছে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here