মুখ‍্যমন্ত্রীর আগমন, তাই কি সংস্কৃতির বিসর্জন?

0
57

শুভময় সেন,বহরমপুর:-

মূখ্যমন্ত্রীর মুর্শিদাবাদ সফর ঘিরে একদিকে যখন জেলা প্রশাসনের নাজেহাল অবস্থা, তখন অন্যদিকে সাংস্কৃতিক পীঠস্থান হিসেবে খ্যাত বহরমপুরের সাংস্কৃতিক কর্মীদের মাথায় হাত।প্রশাসনের নির্দেশে ফেব্রুয়ারি মাসের ১৩ তারিখ থেকে ২৩ তারিখ পর্যন্ত বহরমপুর রবীন্দ্রসদনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।জেলা সফরে মুখ্যমন্ত্রীর আসছেন ১৯ তারিখ। তারই প্রস্তুতি ও নিরাপত্তার স্বার্থে এই নির্দেশ বলে জানা গিয়েছে। আর এই নির্দেশের ফলে মাথায় হাত পড়েছে ,ঐ দিনগুলোয় রবীন্দ্রসদনে যাদের পূর্বনির্ধারিত অনুষ্ঠান ছিল, সেই সমস্থ সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর।বহিরাগত ও স্থানীয় নাট্যদল গুলিকে নিয়ে নাট্যোৎসবের আয়োজন করেছিল উজান নাট্যসংস্থা এই মাসের ১৩ তারিখ থেকে। উৎসব শুরু হওয়ার ২৪ঘন্টা আগে ঐ সংস্থার কর্ণধার গৌতম মজুমদার এই নির্দেশের কথা জানতে পারেন। ততক্ষণে আমন্ত্রিত নাট্যদলগুলির জন্য আয়োজন সব শেষ। টিকিট বিলিও প্রায় শেষ। এমনিতেই জেলার নাট্যদল গুলির বেশিরভাগই খুঁড়িয়ে চলে। অনেক সময় টিকিট বিক্রি করে পয়সা পেতে পেতে বছর ঘুরে যায়। তার ওপর আয়োজন করে তা যদি বাতিল করতে হয় সেটা ‘গোদের ওপর বিষ ফোঁড়ার’ সামিল বলেই মনে করেন বাতিল হওয়া নাট্যানুষ্ঠানের আর এক ভুক্তভোগী দল ‘ রণ’ এর কর্নধার সামিনুর। এদিকে নাট্যপ্রদর্শনের জন্য রবীন্দ্র সদনের বিকল্প আর কোন প্রেক্ষাগৃহ নেই, শহরে যেখানে বাতিল হওয়া নাটকের শো গুলোকে স্থানান্তর করা যায়। অথচ একসময় সংস্কৃতিমনস্ক মানুষজনের ভাবাবেগেই তৈরী হয়েছিল বহরমপুর রবীন্দ্র সদন ,সে কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা করেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সীমা সরকার। মহকুমা শাসক বলেন সদন সংস্কারের জন্য সমস্ত শো বন্ধ রাখা হয়েছে। নাটক মঞ্চস্থ করবার আশ্বাস পেয়েও শেষমুহুর্তে অন‍্যত্র তা সরিয়ে নিয়ে যেতে বাধ‍্য হতে হয় নাট্যসংস্থা ঋত্বিক কে।স্বাভাবিক ভাবেই বেশ কিছুটা অসস্থির মুখোমুখি তাঁরাও। এই হঠাৎ প্রস্তুতিতে ফ্রান্সের নাট‍্যদলের সম্মান কতটা রক্ষা করতে পারবেন তা নিয়ে দ্বন্দ্বে ঋত্বিকের সম্পাদক মোহিত বন্ধু অধিকারী। এই অবস্থায় শহরের সাংস্কৃতিক চর্চায় সরকারের অবহেলার দিকটি প্রকট হলো বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞ মহল। অন্যদিকে শুক্রবার বহরমপুর টাউন কংগ্রেস, ব্যারাক স্কোয়ার মাঠে হেলিপ্যাড তৈরী করে মাঠের সবুজ নষ্ট করছে এই অভিযোগ তুলে তাদের একটি প্রতিনিধি দল ,জেলা কংগ্রেসের মুখপাত্র জয়ন্ত দাসের নেতৃত্বে জেলা শাসকের কাছে স্মারক লিপি জমা দেন। পরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জয়ন্ত বাবু বলেন বছর বছর এই এক ই কাজ করে চলেছে প্রশাসন। আগের সরকারের মতো এই সরকারের আমলেও এর বিরোধিতা করছে কংগ্রেস, বলে দাবি করেন তিনি ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here