নানুরে গৃহবধূকে নগ্ন করে গ্রাম ঘোরানোর অভিযোগ

0
179

পিয়ালী দাস,বীরভূমঃ

যুবকের আত্মহত্যার জেরে এক গৃহবধূকে নগ্ন করে ঘোরানো হল পুরো গ্রাম, গ্রামবাসীদের মারে তাঁর একটি হাত ভেঙে গেছে। এখন পুলিশ ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছেন ওই গৃহবধূ।

Allegations of rotating villages By naked | newsfront.co
ঘটনা ঘিরে জনতার জমায়েত। নিজস্ব চিত্র

কোনও জঙ্গলের ঘটনা নয়, এই ঘটনা বীরভূমের নানুর থানার খুজিটিপাড়ার, ওই গৃহবধূর বাপেরবাড়ি এলাকায়। নানুরের গোলাপি লোহারের (নাম পরিবর্তিত) বিয়ে হয়েছিল কড্ডা গ্রামের মাখল লোহারের সঙ্গে। বিয়ের প্রায় দশ বছর পরে তাঁদের দু’টি সন্তান হয়।

পরে গ্রামের রঞ্জন লোহারের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক তৈরি হয় আক্রান্ত মহিলার । ২০১১ সালে প্রণয়ীর সঙ্গে বেপাত্তা হয়ে যান গোলাপি। ২০১২ সালের এপ্রিলে গোলাপি ও রঞ্জন ফিরে আসেন। গ্রামে সালিশি সভায় রঞ্জনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের হস্তক্ষেপে সম্পর্ক জোড়া লাগে মাখন ও গোলাপির। মাখনের সঙ্গে একটি ভাড়াবাড়িতে থাকতে শুরু করে গোলাপি।

অভিযোগ, এবার খুজুটিপাড়ার এক যুবকের সঙ্গে তাঁর প্রণয়ের সম্পর্ক তৈরি হয়। বিষয়টি জানাজানি হতেই এলাকার লোকজন বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন। বৃহস্পতিবার বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হন ওই যুবক।

আরও পড়ুনঃ স্বামী-সন্তান ফেলে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে হাজির মহিলা

এর পরেই এলাকা লোকজন খেপে ওঠেন। গোলাপি তখন মায়ের বাড়িতে ছিলেন। সেখানেই তাঁকে নগ্ন করে মারতে শুরু করেন এলাকার বাসিন্দারা। মারের চোটে ভেঙে গিয়েছে গোলাপির একটি হাত। নগ্ন করে তাঁকে পুরো গ্রাম ঘোরানো হয়। এখন তিনি খুজুটিপাড়া পুলিশ ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছেন। যদিও নানুর থানার পুলিশ এই ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এই ঘটনার পর নিন্দার ঝড় উঠেছে বীরভূমে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here