বাজি কারাখানার ভয়াবহ বিস্ফোরণের বলি এক আহত দুই

0
146

ভাস্কর ঘোষ, মুর্শিদাবাদ:বুধবার সকালে মুর্শিদাবাদের রেজিনগর থানার ফরিদপুর রামপাড়া এলাকায়না বাজি খারখানায় বোমা বিস্ফোরণে মৃত্যু হল একজনের। মৃতের নাম রাহুল সিনহা (১৭)। রেজিনগর থানার ফরিদপুরে তার বাড়ি। ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও দুই জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় জাকির হোসেন ও কারখানা মালিকের স্ত্রী আলেয়া বিবিকে প্রথমে রেজিনগর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও পরে মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে প্রচুর পুলিশ রয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর কোন মৃতদেহ আছে কিনা তা তদন্ত করছে পুলিশ।
স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, বিস্ফোরনে রাহুলের শরীর ছিন্ন ভিন্ন হয়েছে। তার একটি হাত কেটে পালিয়ে গিয়েছে কিন্তু সে বেঁচে থাকতেই কারখানার মালিক সাহাবুদ্দিন মালাকার কয়েকজন স্থানীয় যুবক কে নিয়ে তার দেহ খড় দিয়ে ভালো করে বেঁধে পাশের একটি ধানের জমিতে লুকিয়ে রেখে আসে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করলে হয়ত এত তাড়াতাড়ি মারা যেত না সে।

বিস্ফোরণের বলি
[contact-form-7 404 "Not Found"]

দুর্ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ বাজি কারখানার মালিক সাইবুদ্দিন মালাকার।তার খোজে তল্লাসি চালাচ্ছে রেজিনগর থানার পুলিশ।
ফরিদপুরে সাইবুদ্দিন মালাকারের বাড়ির মধ্যে বাজি কারখানা রয়েছে। সেখানেই কাজ করতেন জাকির হোসেন ও মৃত রাহুল সিনহা। এদিন সকালে তারা কাজ শুরু করেন। আটটা নাগাদ বিস্ফোরণ হয় সেখানে।
স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থানে গিয়ে দেখেন একজনের মৃত্যু হয়েছে সেখানেই। জখম হয়েছেন একজন। স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে সেখানে ছুটে আসে রেজিনগর থানার পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশ ঘটনাস্থানে পৌঁছনোর আগেই দেহ সরিয়ে ফেলা হয়।
আহত জাকির হোসেনের কাকিমা জনান, দু’জনে কাজ করছিল। কীভাবে বিস্ফোরণ ঘটল এখনও জানা যায়নি।
রেজিনগর থানার পুলিশ জানিয়েছে, বিস্ফোরনে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পর থেকে কারখানার মালিক সাহাবুদ্দিন পলাতক। তার খোজে তল্লাশী চালাচ্ছে পুলিশ। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here