অতিরিক্ত পণের চাহিদায় বলি গৃহবধূ,গ্রেফতার স্বামী

0
32

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

Death of housewife for dowry
মৃতা গৃহবধূ। ফাইল চিত্র

বিয়ে হয়েছে প্রায় বছর খানেক।বিবাদ যেন কিছুতেই মিটছে না।বিয়ের সময় নগদ টাকা গহনা সব দেওয়া হয়েছিল,কিন্তু তারপরেও দাবি আর থামে না।কখনো টাকা,কখনো ফ্ল্যাট কিনে দেওয়ার দাবি স্বামীর।আর তা নিয়েই অশান্তি।কয়েকবার আলোচনা বসার পরেও সমাধান হয়নি।

Death of housewife for dowry
বিবাহের ছবি। ফাইল চিত্র

কয়েক মাস ধরে কলকাতায় থাকার পর দুদিন হয়েছে দেশের বাড়ি ফিরেছে।তারপর শুক্রবার মেয়ের বাপের বাড়ির লোক মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে আসতেই আবার ঝামেলা। মেয়ের বাড়ির লোক থানা পৌছনোর আগেই খবর এলো মেয়ে আর নেই।মাত্র ৩০ মিনিট আগে যাকে জলজ্যান্ত দেখলো ৩০ মিনিট পর তার মৃত্যুর খবর শুনতে হবে,এমনটা ভাবতেই পারেনি কেউ। কিছুক্ষনের মধ্যেই পুরো পরিবেশটা পরিবর্তন হয়ে গেলো। মেয়েকে হারাতে হোল তার বাবাকে।এমনই একটি নজির বিহীন ঘটনার ছবি উঠে এলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা ব্লকের ৩ নং সত্যপুর অঞ্চলের ভাইনগর গ্রামে। এক বছর আগে ডেবরার চককুমার গ্রামে গোলাম মুস্তাফার মেয়ে মেহেবুবা খাতুনকে ভাইনগর গ্রামের বাসিন্দা নিসাত পারভেজের সঙ্গে বিয়ে দেয়।বিভিন্ন সময়ে দাবি দাওয়া ও অশান্তির জেরে কলকাতায় থাকতো দম্পতি। তারপর শুক্রবারে এই ঘটনা।

Death of housewife for dowry
মৃতার বাবা। নিজস্ব চিত্র

মৃতার বাবা জানান ‘সব সময় আমার মেয়েকে এই ভাবে নির্যাতন করতো।শুক্রবার আমরা দেখা করতে গেলে আমাদেরকে ধাক্কা দিয়ে বাইরে বের করিয়ে দেয়। তারপর থানা আসার আগেই শুনি মেয়ে মারা গেছে।ওরা চক্রান্ত করে আমার মেয়েকে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ সদ্য বিবাহিত গৃহবধূর আত্মহত্যা

তারপর আমি ডেবরা থানায় খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করি।’ অপরদিকে অভিযোগ পাওয়ার পরেই ডেবরা থানার পুলিশ মৃতের স্বামী সহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here