শুরু হতে চলেছে পূর্বস্থলীর চুপির চর পাখিরালয় সাজানোর কাজ

0
476

শ্যামল রায়,পূর্বস্থলীঃ
পূর্ব বর্ধমান জেলার মঙ্গলকোট কেতুগ্রাম ও পূর্বস্থলী পাখিরালয় চুপি চর পর্যটন কেন্দ্র গুলি ঢেলে সাজাতে একশো দিনের কাজ কে হাতিয়ার করতে চলছে জেলা প্রশাসন। সেই সাথে পর্যটন দপ্তরের বরাদ্দকৃত অর্থে সেজে উঠবে এই এলাকা।জানা গিয়েছে যে কালনা মহকুমার পূর্বস্থলী ২ নম্বর ব্লকের পাখিরালয় চুপির চর সাজানোর কাজ দু-একদিনের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে।সোমবার পূর্বস্থলী ২ নম্বর ব্লক সূত্রে জানা গিয়েছে যে ট্যুরিজম বিভাগ থেকে অর্থ বরাদ্দ হয়েছে ২৫ লক্ষ টাকা।এই বরাদ্দকৃত অর্থে কটেজ সুইমিং পুল দোলনা সহ পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করতে বিভিন্ন রকম খেলাধুলার সরঞ্জাম দিয়ে সাজানো হবে চুপির চর পাখিরালয় কে।আরো জানা গিয়েছে যে পূর্বস্থলী পাখিরালয় কে পক্ষীনিবাস হিসাবে গড়ে তুলতে দেড় কোটি টাকা চেয়ে এক বছর আগে একটি প্রজেক্ট পাঠানো হয়েছিল জেলা পরিষদে।ওই টাকা এখনো না আসার কারণে চুপির চর কে ঢেলে সাজানোর কাজে হাত লাগানো সম্ভব হচ্ছে না।শীত পড়তেই পূর্বস্থলী পাখিরালয় পর্যটকরা আসতে শুরু করেন। কারণ চুপির চর পাখিরালয় বিদেশী পাখিদের আনাগোনা হয় এবং নিত্যনতুন পাখি দেখতে পান পর্যটকরা তাই আরো পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করতেই এই ধরনের উদ্যোগ রাজ্য সরকারের ট্যুরিজম বিভাগের।ব্লক সূত্রে জানা গিয়েছে যে ওই পাখির চর কে ঢেলে সাজাতে যে দেড় কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে অর্থ বরাদ্দ হলেই কাজ শুরু হয়ে যাবে এবং সেজে উঠবে চুপি পাখিরালয়।

নিজস্ব চিত্র

এছাড়াও মঙ্গলকোটের প্রোগ্রামে কেতুগ্রামের অট্টহাস কেউ পর্যটকদের কাছে তুলে ধরার জন্য সংস্কার এবং নতুনভাবে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন।
পূর্ব বর্ধমান জেলা শাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন যে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠতে পারে এমন তালিকা তৈরি করতে হবে বিভিন্ন ব্লকে তারপর সেই সমস্ত জায়গা ঘিরে ইকো পার্ক এবং পর্যটকদের সুবিধার জন্য নানান ধরনের কর্মসূচি হাতে নেওয়া যেতে পারে তাই ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক দের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
জেলাশাসক আরো জানিয়েছেন যে গ্রামীণ এলাকার পর্যটন কেন্দ্র গুলো কে গুরুত্ব দিয়ে পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করতে সাজিয়ে তোলার কাজ শুরু হবে শীঘ্রই।এছাড়াও জেলা জুড়ে ওই সমস্ত এলাকার পুরাতত্ত্ব বিষয় নিয়ে প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে।পুরাকীর্তির যাতে বজায় থাকে সে বিষয় নিয়ে একটি পুস্তিকা করার ভাবনা ও রয়েছে জেলা প্রশাসনের।
পূর্ব বর্ধমান জেলার বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন পুরাকীর্তি রয়েছে।মঙ্গলকোটের বিক্রমাদিত্যর ডিবির মত জায়গা দেখভালের অভাবে নষ্ট হতে বসেছে তাই ওই জায়গা কেউ নতুনভাবে সংস্কার এবং ঢেলে সাজানোর কাজ শুরু হবে।
এছাড়াও কেতুগ্রামের অট্টহাস কেউ ঢেলে সাজানোর কাজ শুরু হবে। আর এই সমস্ত পুরাকীর্তি সংস্কারের সময় গবেষকদের সাথে আলোচনা করে মতামত নেয়া হবে বলেও জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর।তাই বিভিন্ন পুরাকীর্তির সূক্ষ্ম কাজ বজায় থাকে সেদিকে নজর রাখতেই এই ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে এবং ওই সমস্ত স্থানগুলি পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় করতে ঢেলে সাজানোর কাজ হাতে নিতেই অর্থ বরাদ্দ থেকে শুরু করে সমস্ত রকম পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে জেলা প্রশাসন সেই রকমটাই নির্দেশ এসেছে আমাদের কাছে জানালেন বিভিন্ন ব্লক এর সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকরা।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here