ডায়ালিসিস-সিটি স্ক্যান পরিষেবার দাবি

0
39

পিয়া গুপ্তা,উত্তর দিনাজপুরঃ

ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে ট্রমা কেয়ার ইউনিট চালু হলেও এখানে সিটিস্ক্যান মেশিন না থাকায় রোগীকে ভর্তি করে সমস্যায় পড়ছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। দুর্ঘটনাজনিত আঘাত নিয়ে কোনও রোগী এলে তাঁর প্রাথমিক চিকিৎসা ট্রমা কেয়ার ইউনিটে হলেও চিকিৎসকরা সিটিস্ক্যান করার কথা বলেন। কিন্তু এখানে ওই পরিষেবা না থাকায় রোগীকে বাইরে নিয়ে যেতে হয়। তাই ট্রমা কেয়ার ইউনিটের সঙ্গে সিটিস্ক্যান পরিষেবা চালুর দাবি উঠেছে। একইসঙ্গে এখানে ডায়ালিসিস বিভাগ খোলার দাবিও উঠেছে।

Islampur hospital | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার নারায়ণ মিদ্যা বলেন, আমরা কিছুদিন আগেই ট্রমা কেয়ার ইউনিট চালু করেছি। এরমধ্যেই সিটিস্ক্যান মেশিন বসিয়ে ওই পরিষেবাও চালু করা হবে। হাসপাতালে সিটিস্ক্যান মেশিন পাঠানোর জন্য স্থাস্থ্যভবনে চিঠি পাঠানো হয়েছে। মেশিন চালানোর জন্য একজন দক্ষ অপারেটের প্রয়োজন। আশা করছি, দ্রুত অপারেটরও পেয়ে যাব। সিটিস্ক্যান পরিষেবা পাবলিক-প্রাইভেট-পার্টনারশিপ মডেলে চালানো হবে। ডায়ালিসিস বিভাগের জন্য আমাদের ঘর তৈরি আছে। শীঘ্রই ওই বিভাগও চালু হয়ে যাবে।

প্রোগ্রেসিভ ডক্টরর্স অ্যাসোসিয়েশনের ইসলামপুর হাসপাতাল ইউনিটের সম্পাদক সমরেশ শীল বলেন, মাথার আঘাত কতটা গুরুতর, রোগীর অভ্যন্তরীণ চোট কতটা তা জানার জন্য সিটিস্ক্যানের রিপোর্টের উপর নির্ভর করতে হয়। কিন্তু হাসপাতালে এই গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবাটিই অমিল রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ নির্মল জেলা গড়ার লক্ষ্যে পরিচ্ছন্নতা অভিযানে নামলেন জেলাশাসক

এছাড়াও এখনে কিডনির সমস্যা নিয়ে প্রচুর রোগী আসেন। অনেকেরই ডায়ালিসিসের দরকার হয়। সেটাও এখানে পাওয়া যায় না। গুরুত্বপূর্ণ এই দু’টি ইউনিট হাসপাতালে চালু করা দরকার।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here