কোচবিহার জেলা পুলিশের সহায়তায় করোনা আক্রান্তের শেষকৃত্য

0
9

নিজস্ব সংবাদদাতা,কোচবিহারঃ

কোভিড আক্রান্ত বৃদ্ধের শেষকৃত্যের সমস্ত দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়ে বিরলতম নজির সৃষ্টি করল কোচবিহার জেলা পুলিশ। এদিন বুড়িরহাট ভুলকির এক কোভিড আক্রান্ত বৃদ্ধের শেষকৃত্যের সমস্ত দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিল স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসন।

police | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

কোভিড পরিস্থিতিতে এবং করোনায় আক্রান্ত থাকার জন্য শেষকৃত্যে হাজির হতে পারেননি কোন আত্মীয় স্বজন। ওসি সাহেবগঞ্জ শ্রী হেমন্ত শর্মা নিজেই মুখাগ্নি করেছেন শেষ মূহুর্তে । সদ্য পিতৃহারা হওয়ার পর মাথার উপর থেকে পিতার হাত সরে যাওয়ায় তিনি মানসিক ভাবে বিধ্বস্ত ছিলেন। তাই পরিস্থিতি কে অনুভব করে নিজেই ওই বৃদ্ধের দাহকার্য হিন্দু রীতি মেনে সম্পন্ন করে সেই চিতাভস্ম নিজে যত্ন করে এনে রেখে দেন মালখানাতে।

আরও পড়ুনঃ বিজেপি ছেড়ে ফের তৃণমূলে যোগ হুমায়ুনের

মালখানা হল থানার সেই সুরক্ষিত ঘর যেখানে বাজেয়াপ্ত করা সমস্ত বস্তু এবং মূল্যবান জিনিস এমনকি কোন অপরাধে ব্যবহত অস্ত্রশস্ত্রও রাখা হয় । নিজে যত্ন করে সেই সুরক্ষিত ঘরে রেখে দেন ওই বৃদ্ধের চিতাভস্ম।
বৃহস্পতিবার সকালে মৃতের এক পুত্র বিবেকানন্দ অধিকারী থানায় এসে নিজের পরিচয় দেন এবং সেই সযত্নে সুরক্ষিত চিতাভস্ম হেমন্ত বাবুর হাত থেকে গ্রহণ করেন। পাশাপাশি দুই পিতৃহারাকে কোভিড আবহে এই পবিত্র চিতাভস্ম মিলিয়ে দিল বলে মনে করা হচ্ছে।

বিবেকানন্দ অধিকারী বারংবার তার হার্দিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন, হেমন্ত শর্মাকে তথা কোচবিহার পুলিশ প্রশাসনকে , এই কোভিড আবহে মানবিকতার ও দায়িত্বশীলতার চূড়ান্ত দৃষ্টান্ত স্থাপন করার জন্য। কোচবিহার পুলিশের মানবিক মুখের উজ্জ্বল প্রতিচ্ছবি আজ সারা জেলায় তথা সারা বাংলার মানুষ মনে রাখবে ৷

কিন্তু আত্মীয় স্বজন বিহীন এক কোভিড আক্রান্ত মৃতদেহের মুখাগ্নি থেকে শুরু করে সমস্ত রীতিনীতি মেনে দাহকার্য সম্পন্ন করে সুরক্ষিত চিতাভস্ম পরিবারের হাতে তুলে দিয়ে বিরলতম নজির সৃষ্টি করল কোচবিহার জেলা পুলিশ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485