বিধ্বংসী আগুন ট্যাংরার চামড়ার গুদামে, দমকলের ১৫টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে- হতাহতের কোন খবর নেই

0
16

নিজস্ব প্রতিবেদন, নিউজ ফ্রন্টঃ

ট্যাংরায় চামড়ার গুদামে বিধ্বংসী আগুন। ১৫ টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানা গিয়েছে দমকলের তরফে। অত্যন্ত ঘন জনবসতি পূর্ণ এলাকা হওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Massive Fire
প্রতীকী চিত্র

শনিবার সন্ধ্যেবেলা ভয়াবহ আগুন লাগে ট্যাংরার মেহের আলি লেনের চামড়ার গুদামে। আগুনের ধোঁয়ায় এলাকার বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে জানা গিয়েছে। বেশ কিছু স্থানীয় বাসিন্দাকে এলাকা থেকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে জানা গিয়েছে। আগুন লাগার কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভানোর কাজ চালাচ্ছেন দমকলকর্মীরা। কিন্তু আগুন এখনও নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি। দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত হতাহতের কোনও খবর নেই।

চামড়ার গুদাম এলাকাটি বেশ ঘিঞ্জি এবং ঘন বসতিপূর্ণ, তাই আগুন আশেপাশের এলাকাতেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সেই কারণে, আশেপাশের এলাকা থেকে বহু মানুষকে অন্যত্র নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চামড়ার গুদামে প্রচুর পরিমাণে দাহ্য বস্তুও মজুত থাকার কথা শোনা গিয়েছে, সেক্ষেত্রে আগুন ছড়িয়ে পড়ার আতংকে ভুগছেন অনেকেই। রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু জানিয়েছেন, দফতরে শীর্ষ আধিকারিকদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতির উপর মন্ত্রী নজর রেখেছেন। পাশাপাশি প্রশ্ন উঠছে গুদামের অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা নিয়েও। কীভাবে আগুন এমন ভয়াবহ আকার নিল? গুদামে ন্যূনতম অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থাও কি ছিল না? এমনই বেশ কিছু প্রশ্ন ইতিমধ্যেই উঠে আসতে শুরু করেছে।

আরও পড়ুনঃ কলকাতার গেস্ট হাউসে আগুন লেগে মৃত্যু এক বাংলাদেশীর

তবে এই এলাকায় যে গুদাম ও কারখানাগুলি রয়েছে, সেগুলি অত্যন্ত পুরানো। ফলে, অনেকক্ষেত্রেই এগুলিতে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা থাকে না। তবে এই গুদামে নির্দিষ্টভাবে কোনও অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা ছিল কি না, তা এখনও জানা যায়নি।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here