গঙ্গাসাগর মেলায় তীর্থযাত্রী ৭ লক্ষ ৮ হাজারঃ সুব্রত মুখোপাধ্যায়

0
9

সিমা পুরকাইত, দক্ষিণ ২৪ পরগণাঃ

আজ গঙ্গাসাগর মেলা ক্ষেত্রে রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এক সাংবাদিক বৈঠকে যোগ দেন। এদিনের বৈঠকে সুব্রত বাবু বলেন, সাগর সঙ্গমে স্নান করা নিয়ে আদালতের কোন আপত্তি নেই। আদালত গঙ্গাসাগর মেলার রাজ্য সরকারের ব্যবস্থাপনায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

Gangasagar Mela | newsfront.co
সাংবাদিক সম্মেলনে সুব্রত মুখোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

তিনি আরও বলেন, আগামীকাল মকর সংক্রান্তির পুণ্যস্নান। কপিলমুনি মন্দিরের প্রধান পুরোহিত জ্ঞানদাস মহান্ত জানিয়েছেন, ১৪ জানুয়ারি সকাল ৬টা ০২ মিনিট থেকে পরের দিন অর্থাৎ ১৫ জানুয়ারি সকাল ৬টা ০২ মিনিট পর্যন্ত এই পুণ্যস্নান চলবে। এই স্নান নিয়ে সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা রেখেছে যাতে কোনো তীর্থযাত্রীর সাগর সঙ্গমে স্থান করতে কোন অসুবিধা না হয় সে ব্যাপারে সরকার তাদের কর্মীরা সদা সতর্ক থাকবে।

Gangasagar mela2021 | newsfront.co

আজ এই সাংবাদিক বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু ,সাংসদ মণীশ গুপ্ত, বিধায়ক বঙ্কিমচন্দ্র হাজরা উপস্থিত ছিলেন। সুব্রত বাবু জানান, আজ পর্যন্ত গঙ্গাসাগর মেলা ক্ষেত্রে ৭ লক্ষ ৮ হাজার তীর্থযাত্রী এসেছেন। গতবারের তুলনায় অনেক কম হলেও এই সময়ে এই সংখ্যাটা ভালোই, আশাব্যঞ্জক।

Drone surveilance | newsfront.co

তিনি জানান, এ পর্যন্ত পাঁচ লক্ষ ৩ হাজার তীর্থযাত্রীর মেডিকেল টেস্ট হয়েছে। এগুলি বাবুঘাট থেকে গঙ্গাসাগর মেলা ক্ষেত্রে তেরোটি পয়েন্টে করা হয়। গতকাল পর্যন্ত ৫ জনের কোভিড পজেটিভ থাকলেও আজ কোন পজিটিভ পাওয়া যায়নি। তিনি আরও জানান এ পর্যন্ত এক লক্ষ মানুষের বাড়িতে ই স্নানের জন্য গঙ্গার পবিত্র জল পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ফের সৌরভকে রাজনীতিতে না যাওয়ার আবেদন অশোকের

তিনি আরও জানিয়েছেন ই দর্শনের গঙ্গাসাগরের ছবি দেখেছেন ৫ লক্ষ মানুষ বাড়িতে বসে। দমকল মন্ত্রী জানান মেলার জন্য অস্থায়ী ১৩ টি দমকল স্টেশন করা হয়েছে। বিদ্যুৎমন্ত্রী জানিয়েছেন, এ বছর মেলার জন্য পর্যাপ্ত বিদ্যুতের ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোন ভাবে লোডশেডিং হলেও পাঁচ সেকেন্ডের মধ্যে পুনরায় বিদ্যুৎ সংযোগ হবে ।

আরও পড়ুনঃ ভাইপোর বিয়েতে কী কেডি সিং উপস্থিত ছিলেন- প্রশ্ন সুজন চক্রবর্তীর

তিনি জানিয়েছেন এবারের গঙ্গাসাগর মেলায় তার দপ্তরের ব্যয় হয়েছে ৬ কোটি পাঁচ লক্ষ টাকা। যা গত বছরের তুলনায় এক কোটি টাকা কম ।এবারের মেলা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন দিক দিয়ে গ্রীন ক্লিন করার জন্য ১৪৪ টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মীরা কাজ করছেন। সেইসঙ্গে সরকারি আধিকারিক থেকে কর্মীরাও কাজ করছেন চব্বিশ ঘন্টা।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485