মকর সংক্রান্তিতে ঘরে বসে পূণ্যস্নান,উদ্যোগে জেলা প্রশাসন

0
39

সিমা পুরকাইত,দক্ষিণ ২৪ পরগণাঃ

১০ই জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হচ্ছে গঙ্গাসাগর মেলা। চলবে ১৫ই জানুয়ারি পর্যন্ত। কোভিড পরিস্থিতিতে ঘরে বসেই সম্পন্ন করা যাবে মকর সংক্রান্তির পূণ্যস্নান এবং মন্দির দর্শন। এমনই উদ্যোগ নিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন।

ganga snan | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

হাতে গোনা আর কয়েকটা দিনের অপেক্ষা । তারপরই এসে পড়বে মকরসংক্রান্তির মাহেন্দ্রক্ষণ। প্রতি বছর এই তিথিতে দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ ভিড় জমান সাগরদ্বীপে, কপিলমুনির আশ্রমে। কিন্তু এ বার পরিস্থিতি আলাদা।

gangasagar | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

করোনার কথা মাথায় রেখে তাই বেশ কিছু নতুন উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। মেলা থেকে মন্দির দর্শন— সব কিছুতেই ভার্চুয়াল মাধ্যমকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে প্রশাসন।

sadhu baba | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

মেলার শুরু থেকে সাগরতট সহ মেলা প্রাঙ্গণ পরিষ্কার  পরিচ্ছন্ন রাখার একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়েছে জেলা প্রশাসন। মেলার ক’দিন মাইকের মাধ্যমে পুণ্যার্থীদের উদ্দেশ্যে খোলা মাঠে মল-মূত্র যাতে ত্যাগ না করে, তার জন্য বিভিন্ন ভাষায় বারবার ঘোষণা চালাবে।

temple | newsfront.co
কপিলমুনির আশ্রম ৷ নিজস্ব চিত্র

এছাড়াও মেলামাঠ ও সাগরতট পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা হবে। সাগরতট ও মেলামাঠ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য স্থানীয় গঙ্গাসাগর গ্রাম পঞ্চায়েত, সাগর পঞ্চায়েত সমিতি ও ব্লক অফিসের মাধ্যমে নিয়োগ করা হয়েছে শতাধিক পুরুষ ও মহিলা সাফাইকর্মী।

ganga mata | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

সাগরতট ও মেলাজুড়ে রাখা থাকবে প্রায় দু’হাজারের বেশী ভ্যাট। গঙ্গাসাগরে প্লাস্টিক পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিকল্প হিসেবে এবারও মেলাতে কাগজের ঠোঙা ব্যবহারের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। করোনা আবহে মেলা ঘিরে সংশয় তৈরী হলেও মেলা ঘিরে নিরাপত্তা রাখা হচ্ছে আঁটোসাটো ।

sea | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

কচুবেড়িয়া স্থায়ী ও অস্থায়ী ঘাট থেকে স্যানেটাইজ করেই গাড়িতে উঠবে তীর্থ যাত্রীরা । মূল মন্দিরের সামনে জিকজ্যাক যে ভিড় থাকে সেগুলি আরও কঠোর নজর দারিতে রাখা হবে । স্নান ঘাটে বাড়তি নজরদারি থাকছে । স্পিড বোড হোবারক্যাপ্ট দ্বারা পরিচালনা করা হবে ।

lighting | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

এছাড়া স্নানের দিন ড্রোন ক্যামেরার মধ্য দিয়ে নজরদারি চালানো হবে ।ওয়াচ টাওয়ারের উপর থেকে লক্ষ্য রাখা হবে তীর্থযাত্রীদের ওপর । মন্দির চত্তর বাড়তি নিরাপত্তা দিয়ে মুড়ে ফেলা হচ্ছে ।

আরও পড়ুনঃ ঝাড়গ্রামে শুরু হল ‘বাংলা মোদের গর্ব’ শীর্ষক অনুষ্ঠান, প্রদর্শনী

ইতি মধ্যেই নাগাসাধুদের দল এসে পড়েছে ।যদিও করোনা আবহে তীর্থযাত্রীদের সমাগম নিয়ে সংশয় রয়েছে এবার । তবে এই আতঙ্ককে ভুলে মাহেন্দ্র ক্ষণে লক্ষ লক্ষ তীর্থ যাত্রীরা আসবে বলে মনে করছেন সাধু সন্ন্যাসী থেকে ব্যবসায়ী মহল ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here