বিদেশে গবেষণা করার ডাক পেল মুর্শিদাবাদের ছেলে মহম্মদ ফুল হােসেন

0
174

নিজস্ব সংবাদদাতা, মুর্শিদাবাদঃ

আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনটি স্বর্ণপদক জয় করেছেন তিনি। এবারে বিদেশে গবেষণা করার ডাক পেল মুর্শিদাবাদের ছেলে মহম্মদ ফুল হােসেন।

student | newsfront.co
ফাইল চিত্র

দরিদ্র পরিবার থেকে উঠে এসে বিদেশ যাত্রার ডাক। আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন তিনটি স্বর্ণপদক জয় করে এবার বিদেশে গবেষণা করার ডাক পেলেন মুর্শিদাবাদের একেবারেই প্রান্তিক গ্রামের ছেলে মহম্মদ ফুল হােসেন শেখ। মুর্শিদাবাদের শক্তিপুরের জিনারাপাড়ার গ্রামের এই কৃতি সন্তানের এহেন সাফল্যে পরিবার ও এলাকায় কার্যত উচ্ছ্বাসের ছবি দেখা গিয়েছে। স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, জিনারাপাড়ার গ্রামের পেশায় সবজি বিক্রেতা মান্নাজ শেখ ও গৃহবধূ মীরা বিবির বড় ছেলে মহম্মদ ফুল হােসেন।

আরও পড়ুনঃ ভারতের ইদ উপহার ১০টি লোকোমোটিভ পেলো বাংলাদেশ

ছোট থেকেই মেধাবী থাকলেও নিরক্ষর বাবা মা কিভাবে ছেলেকে পড়াশোনা করাবেন তা নিয়ে বেজায় দুশ্চিন্তায় পড়েন। যদিও মামা মহসিন শেখের উৎসাহে পড়াশােনা চালিয়ে যেতে থাকে হোসেন। জওহর নবােদয় কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পাশের পর আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থ বিদ্যায় ভর্তি হন। সেখানেই সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা স্থান অধিকার করে সে।

পদার্থবিদ্যায় প্রথম স্থানাধিকারি হিসেবে ইউনিভার্সিটি মেডেল (ফিজিক্স ডিপার্টমেন্ট টপার-২০১৮), ইউনিভার্সিটি মেডেল ফ্যাকাল্টি অফ সায়েন্স টপার-২০১৮ ও আবদুল আজিজ (ডােনার) গােল্ড মেডেল ফর বিএসসি অনার্স পান মহম্মদ হোসেন। ২০১৮ সালে স্নাতক পরীক্ষায় পদার্থ বিভাগে ৯১.৮৬ নম্বর পেয়ে আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম স্থানাধিকারী হন ফুল হােসেন।

আরও পড়ুনঃ নব সাজে সজ্জিত কোচবিহারের পুলিশ হাসপাতাল

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে হোসেনকে তিনটি স্বর্ণ পদক দেওয়া হয়। বর্তমানে পদার্থ বিদ্যায় মাস্টার্স ডিগ্রি করছেন তিনি। ডিসেম্বরে পরীক্ষা শেষে তিনি আমেরিকার গবেষণাগারে পিএইচডি করার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন।

মহম্মদ ফুল হোসেন জানান, “আমেরিকায় গবেষণা করার অফার এসেছে। নিউট্রিনাে ফিজিক্সে গবেষণা করার ইচ্ছে রয়েছে। বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার অফার আসলেও ক্যানসাস ইউনিভার্সিটিতেই পিএইচডি করতে চান বলেও জানান হোসেন।

এদিকে সাধারণ পরিবার থেকে উঠে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা ও আমেরিকায় গবেষণা করার সুযোগ পাওয়ায় আনন্দে চোখে জল এসেছে বাবা মায়ের।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here