ঘোষপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ

0
27

সজিবুল ইসলাম,মুর্শিদাবাদঃ

স্থানীয় বাসিন্দার শংসাপত্র নিতে গেলে একাধিক বাহানা করে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের,এই অভিযোগ ওঠে জলঙ্গী ব্লকের ঘোষপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান বেবি নাজমীন এর বিরুদ্ধে। এই হয়রানির কারণে বিডিও অফিসে লিখিত অভিযোগ করলেন ঘোষপাড়া অঞ্চলের টলটলীর মন্ডল সাইরন বেওয়া নামের এক মহিলা। তাঁর একটি স্থায়ী বাসিন্দার শংসাপত্র প্রয়োজন ছিল, সেই নিয়ে প্রায় একসপ্তাহ ধরে ঘুরতে হচ্ছে। তার অভিযোগ, সোমবার দুপুরে যখন পঞ্চায়েত অফিসে তিনি শংসাপত্র নিতে যান,তখন প্রধান তাঁকে জিজ্ঞেস করেন তিনি কোন দল করেন। তাই বাধ্য হয়ে এদিন তিনি বিডিও অফিসে লিখিত অভিযোগ জানান।

নিজস্ব চিত্র

আরও পড়ুনঃ বিশ্ব শিশুশ্রম বিরোধী সপ্তাহ বিষয়ক প্রচারের জন্য জিয়াগঞ্জ ব্লকের ট্যাবলো

এই ঘটনায় পঞ্চায়েত প্রধান বেবি নাজমীন বলেন সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন অভিযোগ ,”আমি গত একসপ্তাহ শারীরিক অসুস্থতার কারণে রাজ্যের বাইরে চিকিৎসা করতে গিয়েছিলাম।  শুক্রবার বাড়ি ফিরেছি আর তার পরে শনি ও রবিবার সরকারি ছুটি ছিলো পঞ্চায়েত অফিস। সোমবার যখন পঞ্চায়েত অফিস যাই তখন শুনি যে ওই মহিলা অফিসের কর্মীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন। যদি উনি আমার কাছে আসতেন  আমি শংসাপত্র  দিয়ে দিতাম,যেকোনো পরিচয়পত্র নিয়ে এলেই আমি স্থানীয় বাসিন্দার শংসাপত্র দিয়ে দিবো। আর যেসব অভিযোগ করেছে সবই সাজানো।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশে মানুষের সেবায় পঞ্চায়েত চলে।“ কংগ্রেস সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা বলেন তৃণমূলের এটা নতুন কিছু নয় সাধারণ মানুষকে হয়রানি করা,মানুষের কাজ বলে কিছু করেন না শুধু নিজেদের নিয়ে ব্যস্ত।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here