ভারতবর্ষের কন্যা সন্তানের মৃত্যু বাড়াচ্ছে লিঙ্গ বৈষম্য

0
305

তপন চক্রবর্তী,উত্তর দিনাজপুরঃ

ভারতবর্ষে লিঙ্গ বৈষম্য নিয়ে নানান বিতর্ক হলেও তার ফল মোটে সুখকর নয়।ভারতবর্ষের বিভিন্ন স্থান থেকে যে সমস্ত ঘটনার খবর পাওয়া যায় তাতে করে সবারই মাথা নীচু হয়ে যায়।সম্প্রতি তেমনই খবর আমরা জানতে পেরেছি।সম্প্রতি আই আই এ এস এর গবেষণায় উঠে এসেছে।জানা যায় ভারতবর্ষের উত্তরাঞ্চলের রাজ্য গুলিতে মেয়েদের মৃত্যুর হার অনেক বেশি আর সব রাজ্যের তুলনায়।বিশিষ্ট গবেষকরা জানিয়েছেন ভারতবর্ষের বৈষম্য জনিত কন্যা শিশুদের মৃত্যুর হার উত্তরাঞ্চলের চারটি রাজ্যে সব চেয়ে বেশি।সেই রাজ্য গুলি হল উত্তরপ্রদেশ,বিহার,মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে।লিঙ্গ বৈষম্য জনিত কারণে প্ৰতি বছর ৫বছরের কম বয়সী মেয়েদের মৃত্যুর সংখ্যা ২লক্ষ ৩৯ হাজার।যা মৃত্যুর দুই তৃতীয়াংশ।গবেষণায় দেখা গেছে বিশেষত দুর্গম অঞ্চলে যেখানে শিক্ষার সুযোগ কম,যেখানে জন্মের ঘনত্ব বেশি সেই সমস্ত এলাকাতেই ৫ অনুর্ধ মেয়েদের মৃত্যুর হার বেশি। জনৈক গবেষকের বক্তব্য সামাজিক ও অর্থ নৈতিক উন্নয়নের জন্য এ দেশের মেয়েদের ভারত সরকার উৎসাহ দেখাচ্ছে তার সাথে সাথে লিঙ্গ বৈষম্যের কারনে যে বিপুল পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে সেদিকে তেমনভাবে লক্ষ্য রাখা হচ্ছেনা।কোন স্বাধীন উন্নয়নশীল দেশের পক্ষে লিঙ্গ বৈষম্যের কারনে মৃত্যু মোটেও গৌরবের বিষয় নয়।এই ধরনের অকাল মৃত্যুর ক্ষেত্রে সামাজিকভাবে পুত্র সন্তানের প্রতি বেশি পক্ষপাত ও কন্যা সন্তানদের অনাহুত হিসাবে বিবেচনা করাকেই অন্যতম কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থা সংস্থা র তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে বিশ্বে ১০৫টি ছেলের বিপরীতে ১০০টি কন্যা শিশু জন্মগ্রহণ করে বলে জানা যায়।সেখানে আমাদের দেশে প্ৰতি ১০০ কন্যা শিশুর বিপরীতে ১০৭টি পুত্র শিশু জন্ম গ্রহন করে।গবেষকগণ বলেছেন ভারতের ৩৫টি রাজ্যের মধ্যে ২৯টি রাজ্যে ৫বছরের নীচে কন্যা শিশুদের মৃত্যুর হার পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক বেশি।গবেষকেরা বলেছেন কি কেন্দ্রীয় সরকার অথবা রাজ্য সরকার এসবের ব্যাপারে অধিক মনোনিবেশ না করে শুধু কন্যাশ্রী,বেটি পরাও বেটি বাঁচাও রাজ্যশ্রী যোজনা যে গালভরা কাগুজে বাঘ তা সত্যি সত্যিই স্পষ্টই প্রমাণিত।

আরও পড়ুনঃ কুশমন্ডিতে মদ না পেয়ে আত্মঘাতী গৃহবধূ

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584