পুলিশ নিয়ে দিলীপের কু-কথার জবাবে নাম না করে তুলোধনা মুখ্যমন্ত্রীর

0
64

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতাঃ

পুলিশ দিবস উদযাপনে প্রশাসনকে পুলিশ বন্ধু ও বিরোধী রাজনৈতিক দলকে পুলিশ-বিরোধী প্রমাণ করতে সচেষ্ট হলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করলেন সমস্ত রকম নিরাপত্তা রাজ্য ও কলকাতা পুলিশের কাছ থেকে পেয়ে উল্টে তাদেরই অপমান করছেন কিছু মানুষ।

Mamata Banerjee | newsfront.co
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবিঃ স্ক্রিনশট

এই অধিকার তাদের কে দিয়েছে? এই কথা বলেই নবান্নের সরাসরি প্রশ্ন তুললেন তিনি। যদিও গোটা বক্তৃতায় কোথাও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নাম করেননি তিনি কিন্তু তার সমস্ত আক্রমণের তির যে তার দিকেই ছিল তা বলার অবকাশ রাখে না।

কিছুদিন আগে এক প্রকাশ্য জনসভায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘বিজেপি কর্মীদের প্রত্যেক দিনই কোথাও না কোথাও খুন করা হচ্ছে। মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। আর প্রশাসনের নির্দেশে এসব করছে পুলিশ। ক্ষমতায় এলে এদেরকে কান ধরে উঠবস করাবো আমরা।’

আরও পড়ুনঃ দুর্বৃত্তে ভরে গেছে বিজেপির আইটি সেল, অভিযোগ সুব্রমনিয়ম স্বামীর

সোশ্যাল মিডিয়ায় দিলীপ ঘোষের বক্তব্যকে হাতিয়ার করে তাকে পুলিশ-বিরোধী প্রমাণ করতে সোমবার থেকেই নেমে পড়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের ফেসবুক পেজ। আর সেই কথা রেশ টেনেই নবান্নে চোখা চোখা ভাষায় বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রথমে তিনি একটি ভুয়ো হোয়াটসঅ্যাপ পোস্টের কথা তুলে ধরেন। সেখানে দুর্গাপুজো কালীপুজো কিরকম ভাবে লোকজন ঠাকুর দেখবে তা বর্ণনা করা হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ নিম্নমানের খাবার, প্রতিবাদে পথ অবরোধ করোনা রোগীদের

অনেকেই ভেবে বসেন সরকারের তরফে এটাই চূড়ান্ত করা হয়েছে। কিন্তু এরকম কোন মিটিং হয়নি এবং পুরোটাই অপপ্রচার বলে দাবি করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলার জাতীয় উৎসব কে নিয়ে আপনারা ছেলেখেলা করছেন। এখন ধার্মিক ভীরু সাজার চেষ্টা করছেন। বাংলার মানুষ কিন্তু এটা মেনে নেবে না।

এরপরই দিলীপ ঘোষের সেই বক্তৃতার প্রসঙ্গ তুলে কথা বলতে শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘ আপনারা নাকি ক্ষমতায় এলে সবাইকে বাড়ি থেকে টেনে এনে মারবেন এসব বলছেন। এত বড় সাহস আপনাদের কে দিয়েছে? যদি পুলিশকে গালি দিতেন তবুও ভাবতাম। পুলিশের পরিবার নিয়ে টানাটানি করছেন।’

আরও পড়ুনঃ করোনা সংক্রমিত অভিষেক জায়া, আক্রান্ত বিধাননগর পুরনিগমের ডেপুটি মেয়রও

তিনি বলেন পুলিশের পরিবারকে করেছে আপনারা নাকি ওদের বউদের সাথে দেখা করতে দেবেন না, ছেলেদের পড়াশোনা করতে দেবেন না। বলছি গোটা দেশটা কি আপনারা কিনে নিয়েছেন? যে অফিসার আপনাদের পছন্দ নয় তাকে তার ভিন রাজ্যে বাড়ি গিয়ে ভয় দেখাবেন! এত বড় অধিকার আপনাদের কে দিয়েছে? রাজীব কুমারের বৃদ্ধা মাকেও আপনারা বাড়ি ঢুকে ভয় দেখিয়েছেন। এসব কিন্তু আমি সহ্য করবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা এসব পুজো নিয়ে ভুয়ো সংবাদ ছড়াচ্ছেন, তারা ধরা পড়লে তাদের কান ধরে জনগণের সামনে একশোবার উঠবস করাবে। কি আপনারা যারা এসব করছেন তারা জনগণের সামনে কান ধরে উঠবস বা নাকখত করবেন তো? আপনারা না কি পুলিশকে কান ধরে উঠবস করাবেন? আগামী বিধানসভা নির্বাচনে আপনাদেরকে কারা কারা কান ধরে নিয়ে আসে সেটা দেখুন। বাংলার মাটি দুর্জয় ঘাঁটি মনে রেখো দুর্বৃত্ত!’

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here