মধ্যপ্রদেশে বৃষ্টির আশায় নাবালিকাদের নগ্ন করে ঘোরানো হল গ্রামে, রিপোর্ট তলব শিশু কমিশনের

0
35

নিজস্ব প্রতিবেদন, নিউজ ফ্রন্টঃ

বৃষ্টি হচ্ছে না, তার প্রতিবিধানে অন্তত ৬ জন কিশোরীকে নগ্ন করে ঘোরানো হলো গ্রামে। গ্রামবাসীদের বিশ্বাস এর ফলে নাকি বৃষ্টি হবে! এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটে গেল মধ্যপ্রদেশের দামো জেলার বানিয়া গ্রামে। নেট মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল হতে ঘুম ভেঙেছে জেলা প্রশাসন ও জাতীয় শিশু অধিকার রক্ষা কমিশনের। কমিশন রিপোর্ট চেয়েছে জেলা প্রশাসনের কাছে।

Save girls
প্রতীকী চিত্র

পুলিশ সূত্রে স্বীকার করা হয়েছে ঘটনার সত্যতা। দামো জেলার পুলিশ সুপার ডিআর তেনিয়ার জানিয়েছেন, বৃষ্টি নিয়ে বেশ কিছু ধর্মীয় বিশ্বাস রয়েছে স্থানীয় গ্রামের মানুষদের মধ্যে। তার মধ্যে একটি হল নাবালিকা মেয়েদের নগ্ন করে গ্রামে ঘোরানোর রীতি। বড়োরাও থাকেন এই কিশোরীদের সাথে, তাঁরা ভজন গাইতে গাইতে এই কিশোরীদের সাথে ঘোরেন। স্থানীয় মানুষের বিশ্বাস এর ফলে সন্তুষ্ট হবেন বৃষ্টির দেবতা ও নামবে বৃষ্টি। উল্লেখ্য, পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। ‘জোর করে’ ওই কিশোরীদের নগ্ন করা হয়ে থাকলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ কড়া সমালোচনার মুখে কেন্দ্র, ট্রাইব্যুনাল সংক্রান্ত প্রস্তাব না মানলে হুঁশিয়ারি সুপ্রিম কোর্টের

দামো জেলার জেলাশাসক এস কৃষ্ণ চৈতন্য শিশু কমিশনকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, ওই কিশোরীদের বাড়ির লোকও ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল। পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে সচেতনতা গড়ে তোলার আশ্বাস দিয়েছেন জেলাশাসক।

আরও পড়ুনঃ ফের ‘মাওবাদী’ নামাঙ্কিত পোস্টার পুরুলিয়ায়! নিশানায় বরাবাজার আইসি ও মানবাজার এসডিও

নেট মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গিয়েছে কয়েকজন কিশোরী নগ্ন হয়ে হাঁটছে, তাঁদের পিঠে বাঁধা রয়েছে একটি ব্যাঙ। ইতিমধ্যেই ওয়াকিবহাল মহল প্রশ্ন তুলেছে ‘জোর করে’ শব্দটির মাধ্যমে কি বোঝাতে চাইছে পুলিশ প্রশাসন! জোর না করা হয়ে থাকলে প্রশাসনের ভূমিকা সেক্ষেত্রে কি হবে!

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here