করোনার লকডাউন নিয়ে দ্বন্দ্ব শ্রমিক মালিকের

0
31

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুরঃ

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া শিল্পাঞ্চলের একটি সার কারখানায় করোনা ভাইরাসের জেরে দ্বন্দ্ব শুরু হলো শ্রমিক এবং মালিক কর্তৃপক্ষর। করোনা ভাইরাসের কথা মাথায় রেখে হলদিয়া শিল্পাঞ্চলে কারখানাগুলোতে শ্রমিকদের জন্য লক্ষণরেখা টানলো কারখানা কর্তৃপক্ষ।

factory | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

শ্রমিকরা যাতে পর পর নিয়ম মেনে ঠিক সেই ভাবেই ভিতরে প্রবেশ করতে পারে, দূরত্ব মেনে চলতে পারে তার জন্য কর্তৃপক্ষ লক্ষণ রেখা টেনে রাখলেন। হলদিয়ার দুর্গাচকে ইন্দরামা নামে একটি সার তৈরীর কারখানা কারখানার শ্রমিক ও কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অসন্তোষ সামনে আসে।

Bhaskar Gupta | newsfront.co
ভাস্কর গুপ্ত, ম্যানেজার। নিজস্ব চিত্র

শ্রমিকদের বক্তব্য যে করোনাভাইরাসের জন্য সরকার যেখানে বাড়িতে থাকতে বলেছেন সেখানে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ বাধ্য করছে কাজে যোগদান করতে। সরকারি নিয়মকে তোয়াক্কা না করেই তারা কাজ জোর করে চালিয়ে যাচ্ছেন।মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন যে কারখানার শ্রমিকরা যারা কাজে না গেলেও তাদের যেন বেতন ঘরে বসে পায় সেই ব্যবস্থা কতৃপক্ষকে একটু দেখতে।

আরও পড়ুনঃ লকডাউনের ফায়দা লুটতে বেআইনীভাবে মদ বিক্রি শিক্ষিকার স্বামীর, গ্রেফতার তিন

labour | newsfront.co
কর্মরত শ্রমিক। নিজস্ব চিত্র

কিন্তু এনারা তার বিপরীত প্রতিক্রিয়া করছে বলে শ্রমিকের অভিযোগ। এই ভাইরাসকে মাথায় রেখেই তাদের কাজ চালিয়ে যেতে হবে। শ্রমিকদের বক্তব্য যে তারা এই কাজ হারানোর ভয়ে, করোনাভাইরাস এত সংক্রমণ হওয়ার মাথায় রেখে তারা বাধ্য হচ্ছে কাজে আসতে, তাদের বাধ্য করানো হচ্ছে কাজে যোগ দিতে।

marking distance | newsfront.co
চিহ্নিত দূরত্ব। নিজস্ব চিত্র

তাছাড়া শ্রমিকরা আরও অভিযোগ করে যে তাদের স্যানিটাইজার ব্যবহার না করিয়ে এবং ডিস্টেন্স না মেনে তাদেরকে বাধ্য করা হচ্ছে কাজ করতে।

আরও পড়ুনঃ স্তব্ধ দেশ, তবুও রেলের কাজ চলছে অভিযোগ শ্রমিকদের

যদিও কারখানার কর্তৃপক্ষ এই অভিযোগকে উড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের কারখানা কর্তৃপক্ষের বক্তব্য যে তারা এখন যে পরিমাণ শ্রমিক কাজ করতো এমার্জেন্সী বেসিসে ফাইভ পার্সেন্ট শ্রমিককে নিয়ে তারা এখন কাজ করাচ্ছেন। নূন্যতম শ্রমিক দিয়ে তাদের কারখানাটি চালিয়ে রেখেছেন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here