অবশেষে ইরা বসুর পেনশন চালু করল নবান্ন, ‘নমনি’ হলেন বুদ্ধদেব-কন্যা সুচেতনা

0
47

মোহনা বিশ্বাস, ওয়েব ডেস্ক : অবশেষে পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব বসুর শ্যালিকা ইরা বসুর পেনশেন চালুর নির্দেশিকা জারি করল নবান্ন। হাসপাতালে থাকাকালীন ইরা বসুর সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাঠানো ব্যক্তি। তার পরেই পেনশনের বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, ইরাদেবীর পেনশনে ‘নমিনি’ হিসাবে রয়েছে বুদ্ধদেব-কন্যা সুচেতনার নাম। মঙ্গলবারই নবান্নের অর্থ দফতরের তরফে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। এই নির্দেশিকায় লেখা রয়েছে, আপাতত প্রতি মাসে ১৩ হাজার ৯৮৫ টাকা পেনশন পাবেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শ্যালিকা ইরা বসু। নবান্ন সূত্রে খবর, ২০০৯ সালের ১ মে থেকে এই নির্দেশিকা কার্যকর করা হয়েছে। অর্থাৎ গত ১১ বছরের বকেয়া পেনশনও একেবারে পাবেন ইরাদেবী। শুধু তাই নয়, পেনশনের পাশাপাশি ইরাদেবী পাবেন গ্র্যাচুয়িটির টাকাও।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খড়দহের প্রিয়নাথ বালিকা বিদ্যালয়ের জীবনবিজ্ঞানের শিক্ষিকা ছিলেন ইরা বসু। ২০০৯ সালে অবসর নেন তিনি। তার পরই জীবনের নানা টানাপোড়েনের পর ইরাদেবীর এই করুণ পরিস্থিতি হয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও ইরাদেবীকে কোনোদিন কারোর কাছে হাত পাততে দেখা যায়নি। এই ঘটনার খবর জানাজানি হওয়ার পর দ্রুত এক ব্যক্তিকে তাঁর কাছে পাঠান তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে পুরনায় তাঁর পেনশন চালু করার বিষয়ে আশ্বাসও দেওয়া হয়। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মঙ্গলবার ইরাদেবীর পেনশন চালু হওয়ার নির্দেশিকা জারি করল নবান্ন।

চলতি মাসের শুরু দিকেই ইরা বসুকে পাওয়া গিয়েছিল ডানলপ মোড়ের কাছে, ফুটপাতে। ঘাড় পর্যন্ত ছাঁটা উসকোখুসকো চুল। পরণে ছিল পুরনো নাইটি। বৃদ্ধা ইরাদেবী ওই এলাকায় ‘ভবঘুরে মাসিমা’ নামেই পরিচিত ছিলেন। অথচ সল্টলেকে তাঁর নিজের বাড়ি রয়েছে। এর পর পুলিশ ইরাদেবীকে ওই ফুটপাথ থেকে উদ্ধার করে লুম্বিনী পার্ক মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করে। সেইসময়ই জানা যায়, ইরা বসু আসলে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শ্যালিকা। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বুদ্ধবাবুর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য লিখিত বিবৃতি দিয়ে জানান, ইরা তাঁর নিজের বোন। আর তাঁর বোন স্বেচ্ছায় এই জীবন বেছে নিয়েছেন। হাসপাতালে কিছু দিন থাকার পর খড়দহের বাড়িতে ফেরেন ইরাদেবী। হাসপাতালেই তাঁর সঙ্গে দেখা করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাঠানো এক ব্যক্তি। ইরা বসুকে পেনশন চালু করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি। এর ৭২ ঘন্টা পরই ইরা বসুর পেনশন চালুর নির্দেশিকা জারি করে নবান্ন। এবার আবার ইরাদেবীর স্বাচ্ছন্দ্য যে ফিরে আসবে তা আশা করাই যায়।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here