তপন চক্রবর্তী,উত্তর দিনাজপুরঃ

জেলার রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় খেলা ধুলার উন্নয়নে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া পরিকাঠামোগত উন্নয়নে একগুচ্ছ উদ্যোগ নিয়েছে।জানা গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া পরিকাঠামোর উন্নয়নের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের “খেল ইন্ডিয়া”প্রকল্পের জন্য এই বিশ্ব বিদ্যালয়কে ৫০ কোটি দেবে বলে জানা যায়।রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে,কেন্দ্রীয় সরকারের ‘খেল ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের অধীনে দেশের প্রতিটি রাজ্যের নির্বাচিত স্টেট এডেড ইউনিভার্সিটিগুলির জন্য ৫০ কোটি টাকা করে অনুদান দেওয়া হচ্ছে।সেই টাকা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় নিতে চায় কি না তা উচ্চ শিক্ষা দপ্তর থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল।বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল মাঠে সিন্থেটিক ট্র্যাক নির্মাণ ও সেখানে আলোর ব্যবস্থা,একটি পুকুরকে সুইমিং পুলের রূপ দেওয়া,একটি ইন্ডোর স্পোর্টস কমপ্লেক্স নির্মাণ, জিমনাসিয়াম ও রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টার তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।এরপরেই রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় ওই চারটি প্রকল্প রূপায়ন করবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়। বিশ্ববিদ্যালয় সেই কাজগুলি এবার পূর্তদপ্তরকে দিয়ে করাবে।সেকারণে বিশ্ববিদ্যালয় পূর্তদপ্তরকে ওই কাজের জন্য ডিপিআর তৈরির করার কথা বলেছে।
রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দুর্লভ সরকার বলেন,রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলাধুলোর মান উন্নতির জন্য আমরা চারটি প্রকল্প রূপায়নের উদ্যোগ নিয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অনিল ভুঁইমালির উদ্যোগে এই কাজগুলি হতে চলেছে। রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দপ্তর আমাদের জানিয়েছিল তারা খেলাধুলোর মানোন্নয়নের জন্য টাকা দেবে।তার জন্য কয়েকটি প্রকল্প পাঠাতে বলেছিল। আমরা কাজগুলি পূর্তদপ্তরের মাধ্যমে করাতে চাই।সেইমত পূর্তদপ্তরকে ডিপিআর তৈরি করতে বলা হয়েছে।এই খাতে টাকা পাওয়া গেলে কাজগুলি শীঘ্রই পূর্তদপ্তরকে দিয়ে শুরু করা যাবে।
রায়গঞ্জ ইউনিভার্সিটি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত হওয়ার পর সেখানে পড়াশুনার পরিকাঠামো তৈরির জন্য বেশকিছু কাজ চলছে।ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দশতলা বিল্ডিং নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে।এছাড়াও পুরনো বাড়ি সংস্কার, রাস্তা নির্মাণ,নতুন কনফারেন্স হল সহ আরও একগুচ্ছ কাজ করা হয়েছে।এসব কাজের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় এখন খেলাধুলোর মানোন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে যে মাঠটি রয়েছে সেটিতে সিন্থেটিক ট্র্যাক তৈরি করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে একটি পুকুর রয়েছে। সেই পুকুরটিকে সংস্কার করে সেখানে সুইমিং পুল তৈরি করা হবে। যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা সাঁতার কাটতে পারেন।এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বয়েজ হোস্টেলের পিছনের দিকে একটি ইন্ডোর স্পোর্টস কমপ্লেক্স গড়ে তোলা হবে।যেটি ৬০ মিটার লম্বা ৪০ মিটার চওড়া ও সাড়ে ১২ মিটার উচ্চতা সম্পন্ন করা হবে।এছাড়াও একটি জিমনাসিয়ামের প্রস্তাব উচ্চ শিক্ষা দপ্তরে পাঠানো হচ্ছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে,এই পরিকাঠামোগুলি গড়ে উঠলে বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলাধুলোর মান অনেকটাই উন্নত হবে।

আরও পড়ুন: সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ঘিরে উদ্দীপনা কালিয়াগঞ্জ কলেজে

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here