মাঠ বাঁচাতে বৈঠকে বসছেন স্কুলের প্রাক্তনী-সচেতন নাগরিক মঞ্চ

0
8

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রামঃ

ঝাড়গ্রাম কুমুদ কুমারী স্কুলের মাঠ বাঁচাতে বৈঠকে বসতে চলেছেন স্কুলের প্রাক্তনী ও সচেতন নাগরিক মঞ্চ। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সেই বার্তা ছড়িয়ে পড়েছে স্কুলের প্রাক্তনীদের কাছে।

আগামী শনিবার ১৬ নভেম্বর বিকেল ৩ টায় বৈঠক ডাকা হয়েছে স্কুলের মেন গেটের সামনে। সেখানে প্রাক্তনী থেকে শুরু করে বর্তমান ছাত্রদের আহ্বান জানানো হয়েছে।

the meeting for protect the ground | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

অন্য দিকে, ঝাড়গ্রাম সচেতন নাগরিক মঞ্চের পক্ষ থেকে তরুণ তীর্থ ক্লাবের সামনের মাঠেও বৈঠক ডাকা হয়েছে। সকলের একই উদ্দেশ্য, স্কুলের সবুজ ঘাসকে বাঁচানো।

দলমত নির্বিশেষে স্কুলের ঘাস বাঁচানোকে সমর্থন জানিয়েছেন সকল স্তরের মানুষজন। উল্লেখ্য যে, চলতি বছর মে মাসে ঝাড়গ্রাম কুমুদ কুমারী স্কুলের মাঠে প্রায় ৩৩ লক্ষ টাকা খরচ করে পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদ থেকেই ঘাস লাগানো হয়েছে। সেই সঙ্গে মাঠের চারিপাশে ফেনসিং করা হয়েছে। এতে স্কুলের মাঠের যেমন চেহারা পাল্টেছে, সেরকম স্কুলের সৌন্দর্যায়ন বেড়েছে।

আরও পড়ুনঃ শিশু দিবস উদযাপনে তৎপর হেমতাবাদের পাঠাগার

মাঠে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে ঘাস লাগানোর পর অধিকাংশ ঝাড়গ্রামবাসী আশা করেছিলেন, এবার হয়তো স্কুলের মাঠটি উৎসব বা মেলা থেকে রেহাই পাবে।

কিন্তু ১৩ তারিখ ঝাড়গ্রামে জঙ্গলমহল উৎসবের প্রস্তুতি বৈঠক শেষে পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “কুমুদ কুমারী স্কুল মাঠে জঙ্গলমহল উৎসব হবে। ওটা আমাদেরই সম্পদ। ওখানে বাঁশ পোঁতার জন্য গর্ত হয়ে থাকে বা পেরেক পড়ে থাকে। সেই কাজগুলো আমার ফেলে দিয়ে চলে আসব না। আমরা সব ঠিক করে দেব।”

কিন্তু স্কুলের ছাত্র থেকে শুরু করে ঝাড়গ্রাম শহরের নাগরিকদের দাবি, ওই মাঠে যেহেতু ৩৩ লক্ষ টাকার ঘাস লাগানো হয়েছে, সেখানে আর গর্ত না খোঁড়া ভালো। বিকল্প মাঠে জঙ্গলমহল উৎসব করাই শ্রেয়।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485