ডায়রিয়ায় আতঙ্ক গ্রামবাসীদের

0
29

সুদীপ পাল, বর্ধমানঃ

ডায়রিয়ার প্রকোপে গ্রামবাসীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। গলসি ১ ব্লকের উচ্চগ্রাম পঞ্চায়েতের চরকডাঙ্গা গ্রামে। গত বুধবার রাত থেকে এখনো পর্যন্ত প্রায় ১৫ জন গ্রামবাসীকে ভর্তি করা হয়েছে পুরসা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। গ্রামে ১৭৫টি পরিবারের বাস।

villagers are afraid for Diarrhea | newsfront.co
ছবিঃপ্রতিবেদক

এলাকাবাসীর অভিযোগ, বেশিরভাগ বাড়িতে শৌচাগার নেই। চিকিৎসকরা মনে করছেন অস্বাস্থ্যকর পানীয় জলের কারণে ডায়রিয়া ছড়িয়েছে। গ্রামবাসীরা বলছেন, গ্রামে পাঁচটি নলকূপ রয়েছে। কিন্তু যাবতীয় কাজ সারতে হয় পুকুরের জলে।
গ্রামে ডায়রিয়ার আতঙ্কে ভোগা মানুষদের পরিদর্শনে যান ব্লক মেডিকেল অফিসার সহ চিকিৎসকরা। উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি দেবু টুডু এবং প্রশাসনিক কর্তারা।
জানা যাচ্ছে পেটের যন্ত্রণা শুরু হয় প্রথমে গ্রামের কয়েকজনের। তার সাথে বমি সহ নানা উপসর্গ। কিন্তু ধীরে ধীরে অনেকের মধ্যেই তা ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসীদের মধ্যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। এখনও পর্যন্ত ছয়জন মহিলা, তিনজন শিশুসহ মোট ১৫ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতালে শুয়ে থাকা এক রোগী বলেন, রাতে খাবার খাওয়ার পরে পেটের যন্ত্রণা শুরু হয়। তারপরে বমি শুরু হয়।
যদিও গ্রামবাসীদের আতঙ্কের কোন কারণ নেই।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে দাবি করেন হাসপাতালের বিএমওএইচ ফারুক হোসেন।

আরও পড়ুনঃ পানীয় জলের পাইপে ফেটে দূষিত জল প্রবেশের আশঙ্কা বালুরঘাটে

গ্রামবাসীরা ভয় পেয়ে যান গ্রামে একটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। যদিও এই মৃত্যুর সাথে ডায়রিয়ার কোনো রকম যোগাযোগ নেই বলেই দাবি করেন ফারুকবাবু। ইতিমধ্যে ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে গ্রামের পুকুরের ও দুটি নলকূপের জলের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে পরীক্ষার জন্য।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here