লাভপুরের সভায় বিজেপিকে হুঁশিয়ারি অনুব্রতর

0
46

পিয়ালী দাস, বীরভূমঃ

তারাপীঠে অমিত শাহর রথের সামনেও উন্নয়ন দাঁড়িয়ে থাকবে।পাশাপাশি, ঢাকের কাঠি সরু হয়ে গেছে তাই লোকসভা ভোটের উর্বর জমি চাষ করতে পাঁচন দরকার বলে হুঁশিয়ারি দিলেন অনুব্রত মণ্ডল।

আজ লাভপুরে দাঁড়কা গ্রামে সভা তিনি একথা বলেন।এমনকী, নাম না করে বিশেষ বি.জে.পি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে ‘নাচুনি’ বলেও কটাক্ষ করেন।লাভপুরের দাঁড়কা গ্রামে নদীর পাড়ে বি.জে.পি কর্মী তাপস বাগদির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছিল।বি.জে.পি করার জন্য তৃণমূল খুন করেছে বলে নিহতের বাবা আনন্দ বাগদি লাভপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।পরে নিহতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে কথা বলে গেছিলেন বি.জে.পি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়।লাভপুরের দাঁড়কা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনের মাঠে সভা করেন তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।উপস্থিত ছিলেন মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ, সহ সভাপতি অভিজিৎ সিংহ প্রমুখ।সভাস্থানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নাম না করে বি.জে.পি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “এই পরিবেশে কয়েকদিন আগে এক নাচুনি এসে নেচে গেল।”পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, “যে কোনও মৃত্যু দুঃখজনক।আমরা খুনের রাজনীতি করি না, করব না।পুলিশ আছে, তদন্ত করবে।যদি সুইসাইড না হয় তবে বিচার হবে।চিংড়ি মাছের মত লাফিয়ে লাভ নেই।এটা বীরভূম।”
এরপরেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “এখন ঢাক তো অরিজিনাল নয়, কাঠের ঢাক নয়।কাঠি তো আরও সরু।উর্বর জমি বুথ থেকে অনেক দূরে পড়ে আছে।সেই জমিগুলি চাষ করতে হবে না? পাঁচনের দরকার।আড়াই হাত পাঁচন, মোটা মোটা পাঁচন।তবেই ভালো চাষ হবে।পূজোর পর থেকেই চাষ আরম্ভ হয়ে গেছে।”তারাপীঠে বি.জে.পি-র সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর রথের সামনেও কি উন্নয়ন দাঁড়িয়ে থাকবে? এই প্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “গোটা জেলাতেই তো উন্নয়ন দাঁড়িয়ে আছে।তারাপীঠে এসে তো অবাক হয়ে যাবে।ঘর থেকে বেরিয়েই উন্নয়নকে দেখতে পাবে।এখনও বলছি, তখনও বলেছি, এরপরও বলব।দরজা খুলবে উন্নয়ন দেখতে পাবে।পাঁচন দিয়ে সব ঠিক করে দেব, চিন্তা নেই।”আজ সভামঞ্চে স্থানীয় বি.জে.পি নেতা সুজিত মণ্ডলের নেতৃত্বে প্রায় ৫০ জন বি.জে.পি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485