নিকাশির কাজ চলছে ঢিমেতালে দুর্ভোগের আশাঙ্কায় কালিয়াগঞ্জবাসী

0
55

তপন চক্রবর্তী,উত্তর দিনাজপুরঃ

উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে উন্নতমানের জল নিকাশি ব্যবস্থার কাজ গত দুইমাস ধরে চললেও কাজ কতদিনের মধ্যে শেষ হবে এটাকেও বলতে পারবেনা।উন্নয়নের কাজ একসাথে সব এলাকায় শুরু হবার ফলে শহরের সর্বত্রই খালখন্দ ভরে গেছে।বর্ষা না আসতেই সামন্য বৃষ্টিতেই শহরের জনগনের রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করা এক রকম অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

নিজস্ব চিত্র

কালিয়াগঞ্জ শহরের উন্নয়নের স্বার্থে শহরের চতুর্দিকে যে ভাবে কাজ শুরু হয়েছে তা বর্ষার আগে সম্পুর্ন করা কোন ভাবেই সম্ভব হয়ে উঠবেনা বলেই মনে করতে শুরু করে দিয়েছেন শহরবাসী।শহরবাসীর ব্যক্তব্য একসাথে সমস্ত শহরবাসীকে দুর্ভোগের মধ্যে না ফেলে দিয়ে যদি কিছু কিছু কাজ সম্পুর্ন করার পরে পুনরায় জল নিকাশির কাজ শুরু করা হত তাহলে কোন সমস্যাই দেখা দিতনা। কালিয়াগঞ্জ শহরের সুকান্ত মোড়ের বেশ কয়েকজন প্রবীণ নাগরিক বলেন সুকান্ত মোড় কালিয়াগঞ্জের প্রাণকেন্দ্র।ছেলে মেয়েদের বিদ্যালয় ও কলেজে যাবার একমাত্র রাস্তা।সেই রাস্তার উপরে বেশ কিছুদিন যাবৎ ধরে নিকাশির কাজ হবার ফলে রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করা অসম্ভব হযে পড়েছে।একই রকম ভাবে বিবেকানন্দ মোড়ে বিবেকানন্দ মূর্তির পাদদেশে নতুন করে জল নিকাশীর কালভার্ট তৈরীর কাজ শুরু করা হয়েছে,বিবেকানন্দ মোড়ের রেলগেটে জল নিকাশির কালভার্ট নির্মাণের কাজে হাত দেওয়ার যানবাহন চলাচল করে কোনভাবেই সম্ভব হচ্ছেনা।এরফলে অনেক সময় রাস্তার কাজের খবর না জেনে হুটহাট করে ভারী গাড়ি চলে এসেও পুনরায় সেই গাড়িকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হচ্ছে।

নিজস্ব চিত্র

এর ফলে শহরের মানুষের মুখে মুখে একই কথা কালিয়াগঞ্জের উন্নয়নকে তারা স্বাগত জানায় কিন্তু এক সাথে সব কাজ শুরু করে দেবার ফলে শহরের মানুষদের চরম সমস্যার মধ্যে বর্তমানে পড়তে হচ্ছে।এরপর ভারী বর্ষাশুরু হলে কালিয়াগঞ্জের মানুষের দুর্গতির সীমা থাকবেনা বলে শহরের মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।যদিও কালিয়াগঞ্জ পৌর সভার চেয়ারম্যান কার্তিক পাল বলেন এত আতঙ্কিত হবার কোন কারন নেই। কালিয়াগঞ্জ শহরের মানুষদের বর্ষায় বিপদে যাতে না পড়তে
হয় তার জন্য সবরকম ব্যবস্থার নিয়েছে কালিয়াগঞ্জ পৌরসভা। ভারী বর্ষা হলে পাম্পের সাহায্যে দ্রুত জল শহর থেকে বের করে দেবার ব্যবস্থা পৌরসভা নিয়েছে বলে চেয়ারম্যান কার্তিক পাল জানান। তিনি আরো বলেন,রবিবারের বৃষ্টির কারনে শহরের মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল।কেননা মাত্র কুড়ি মিনিটের বৃষ্টিতে শহরের সুকান্ত মোড় থেকে বিবেকানন্দ মোড়ে যে ভাবে রাজ্য সড়কের উপর দিয়ে বৃষ্টির জল বয়ে গিয়েছিল তা দেখেই মানুষ স্বাভাবিক কারণেই আতঙ্কিত হয়ে পরে বলে তিনি জানান।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here