জনসচেতনতা ও প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণে ইতিহাসের বুকে জ্বলল আলো

0
31

জৈদুল সেখ, মুর্শিদাবাদঃ  

দীপাবলিতে যখন চারিদিক আলোয় আলোকিত তখন কিছু ধ্বংসপ্রায় অবহেলিত ইতিহাসের বুকে মোমের আলো জ্বেলে দেওয়া হলো মুর্শিদাবাদ জেলা ইতিহাস ও সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্রের উদ্যোগে। বিগত চারবছর ধরে ধারাবাহিক ভাবে বাংলার বুকে এই অভিনব কর্মসূচী চলে আসছে। উদ্দেশ্য সাধারণ মানুষের মধ্যে ইতিহাস সচেতনতা বৃদ্ধি করা ও সেই সঙ্গে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা, যাতে মুর্শিদাবাদ জেলা তথা বাংলার গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহ্য গুলি যথোচিত ভাবে সংস্কার ও সংরক্ষণ করে ইতিহাসের হাত ধরে পর্যটন বিকশিত হয়।

district history and cultural center
নিজস্ব চিত্র 

মুর্শিদাবাদ জেলার নিমতিতা জমিদার বাড়ি, লালবাগের ফৌতি মসজিদ, কাশিমবাজার বড় রাজবাড়ি, কর্ণসুবর্ণের নির্জন প্রত্নক্ষেত্র ও লালগোলার রাজবাড়ির গেস্ট হাউস সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক স্থাপত্য ও পুরাসম্পদের ওপর এই মোমের আলো জ্বেলে দেওয়া হলো মুর্শিদাবাদ জেলা ইতিহাস ও সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র-র উদ্যোগে। এক সময় এই সকল ঐতিহাসিক স্থাপত্য গুলোতে উৎসবে থাকত আলোর রোশনাই । বছরভর থাকত নানা ব্যস্ততা। মানুষের উপস্থিতি ছিল অহরহ। কিন্তু এখন সবটাই ধূসর ইতিহাস। বেশিরভাগই অবহেলায় মৃত্যুর প্রহর গুনছে। অনেক ক্ষেত্রে ইতিহাস হারিয়ে গেছে অথবা ইতিহাসকে ভুলিয়ে দেওয়া।

আরও পড়ুনঃ ভাইফোঁটা নিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

তাই মুর্শিদাবাদের ঐতিহাসিক স্থানগুলিতে মানুষের কাছে বিশেষ করে পর্যটন ক্ষেত্রে গুরুত্ব  বাড়িয়ে দিতে এই অভিনব উদ্যোগ। এ প্রসঙ্গে আয়োজক সংস্থার সদস্য সোমনাথ ভট্টাচার্য জানান- “জনমানসে ইতিহাস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্যই গত চারবছর ধরে এই কর্মসূচী নিচ্ছি। সেই সঙ্গে জেলার অবহেলিত স্থাপত্য ও পুরাসম্পদ গুলিকে সঠিক ভাবে সংস্কার ও সংরক্ষণ করে পর্যটন শিল্পকে শক্তিশালি করা যায় তার জন্য প্রশাসনিক দৃষ্টি আকর্ষণ করা “। তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যেই সাধারণ বহু উৎসাহি মানুষ আমাদের সঙ্গে সহমত পোষণ করে যোগাযোগ করেছেন এবং এর যথোচিত বাস্তবায়নে প্রশাসনের সঙ্গেও এই বিষয়টি নিয়ে যথেষ্টই ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ মুর্শিদাবাদে দুই নাবালিকার বিয়ে বন্ধ করল পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সিনি

 

তবে ঐতিহ্য সংস্কার ও সংরক্ষণের হাত ধরে পর্যটন কে প্রসারের লক্ষ্যে দীপাবলিকে কেন্দ্র করে ভিন্ন স্বাদের এই ব্যাতিক্রমি উদ্যোগে সাধারণ মানুষ ও প্রশাসন কতটা প্রভাবিত হবে তা অবশ্য সময় বলবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here