জোর করে পুজো বন্ধের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে- ধুন্ধুমার সন্তোষমিত্র স্কোয়ারে

0
79

বদরুল আলম, কোলকাতা:

সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের পুজো আচমকা বন্ধ হয়ে গেল । শর্ট সার্কিটের জেরে এই বিশৃঙ্খলা । এই অভিযোগে সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের পুজো বন্ধ করে দিল পুলিশ । নবমীর রাত একটা থেকে মণ্ডপের সামনে বসানো হয় ব্যারিকেড । যা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে উদ্যোক্তাদের একপ্রস্থ অশান্তি হয় । এই সিদ্ধান্তে বেজায় ক্ষুব্ধ পুজো উদ্যোক্তারা । তাঁদের দাবি মণ্ডপে কোনও আগুন লাগেনি । পুজো চালু রাখার দাবিতে তাঁরা আদালতে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ।

সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের পুজো বন্ধে দেশপ্রিয় পার্কের ছায়া দেখছেন পুজো উদ্যোক্তারা । তাঁরা এই ঘটনায় ষড়যন্ত্র দেখছেন । তাঁদের দাবি দায়িত্ব ঠিকমতো সামলাতে না পেরেই পুলিশ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে । নবমীর রাতে ঠিক কী হয়েছিল ? পুলিশ সূত্রে খবর , রাত একটা নাগাদ মধ্য কলকাতার এই পুজোয় আগুন দেখা যায় । বিপদ এড়াতে দর্শনার্থীদের মণ্ডপ থেকে বের করে দেওয়া হয় । মনে করা হয়েছিল শর্ট সার্কিট থেকে এই বিপত্তি । ঝুঁকি না নিয়ে দমকলের পরামর্শে পুলিশ পুজো বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় । সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারে ঢোকার রাস্তায় ব্যারিকেড বসানো হয় । মণ্ডপমুখী দর্শনার্থীদের আটকে দেয় পুলিশ । এতে পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হয় । পুলিশের সঙ্গে উদ্যোক্তাদের বচসা বাধে । ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা হয় । মণ্ডপে ঢুকতে না পেরে বিক্ষোভ দেখান দর্শনার্থীরাও । মধ্য রাতের এই ঘটনায় বেজায় ক্ষুব্ধ পুজোর উদ্যোক্তারা ।

তবে পুলিশ ও প্রশাসনের উপর আস্থা রেখে পুজোর সাধারণ সম্পাদক সজল ঘোষ জানান , এই ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক । বিশৃঙ্খলা বুঝতে পেরে আমরা দর্শনার্থীদের শান্ত হওয়ার আবেদন জানাই । উদ্যোক্তাদের মতে সাময়িকভাবে বিশৃঙ্খলা হলেও পুজো বন্ধ করে দেওয়ার মতো পরিস্থিতি ছিল না । এই যুক্তিতে সজল ঘোষের সংযোজন , দমকল জানায় আগুনের কোনও ঘটনা নেই । সিইএসসিও কোনও ত্রুটি পায়নি । আমাদের পুজোয় যে কোনও সমস্যা নেই তা সার্টিফাই করার মতো কেউ ছিল না । তার ফলে পুজো বন্ধ করা হয়েছে । এমনকী মণ্ডপে দেবীর দৈনিক আচারও মানতে দিচ্ছে না পুলিশ । পুলিশ সূত্রে খবর, পুজো উদ্যোক্তাদের কাছে বেশ কিছু নথি চাওয়া হয়েছে । নো অবজেকশন সার্টিফিকেট মিললে তবেই মণ্ডপ খুলে দেওয়া হবে ।

মা দুর্গার ২০ কেজির সোনার শাড়ি । যার দাম ৬ কোটি টাকা । প্রতিমার চোখের আড়ালে সিসিটিভি । সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যার বা লেবুতলা পার্কের পুজোয় এবার এটাই ছিল চমক । ৮২তম বর্ষে অবশ্য ছন্দপতন ঘটলো । তা নিয়ে আক্ষেপের পাশাপাশি , ক্ষোভও তৈরি হয়েছে । পুজো চালু রাখতে নাগরিক কনভেনশন ডাকা হয়েছে । প্রয়োজনে আদালতেও যেতে চান উদ্যোক্তারা ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here