চিকিৎসকের টাকা প্রতারণার অভিযোগ বীমা কোম্পানির বিরুদ্ধে

0
12

শ্যামল রায়,কালনাঃ

মোবাইল টাওয়ার বসানোর নামে লক্ষ-লক্ষ টাকা প্রতারিত হয়েছেন এইরকম এক অভিযোগ ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ালো মন্তেশ্বর থানা এলাকায়। এইরকম তাই দাবি করলেন  মন্তেশ্বরের এক চিকিৎসক।বিমা কোম্পানীর দালাল চক্রের খপ্পরে পড়েই এমন একটি ঘটনা ঘটেছে বলে  তিনি জানান।

complaint about corruption | newsfront.co
অভিযোগকারী চিকিৎসক।নিজস্ব চিত্র

মন্তেশ্বরের ভোজপুর গ্রামের বাসিন্দা পেশায় চিকিৎসক আতিয়ার রহমান মণ্ডল এই ঘটনার পর তিনি কলকাতার ভবানী ভবন সিআইডিতে অভিযোগ জানান এবং শনিবার মন্তেশ্বর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন বলে জানান।

এই বিষয়ে মন্তেশ্বরের ভোজপুরের বাসিন্দা ও চিকিৎসক আতিয়ার রহমান মণ্ডলের বলেন, “২০১৮ সালের মার্চ মাস ফোন মারফৎ জানানো হয় যে,আমার জমিতে বেসরকারি একটি মোবাইল কোম্পানির টাওয়ার বসানো হবে।

তার জন্য আগাম টাকা দিতে হবে।তাই ড্রাফটের মাধ্যমে প্রথমে ৮৫ হাজার টাকা পাঠাই।ধাপে ধাপে প্রায় সারে তিন লক্ষ টাকা দিই।

আরও পড়ুনঃ ফোনে হুমকি দিয়ে ব্যাঙ্ক প্রতারণার শিকার মহিলা

শেষ পর্যন্ত জানতে পারি ওই টাকায় আমার নামে বীমা করা হয়েছে।তার কয়েকটি বন্ডও আমি পাই।এরপরেও টাওয়ার না বসানোয় ফোন মারফৎ ওই ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগ করি।এরপরেই বুঝতে পারি বীমা কোম্পানির দালালদের খপ্পরে পরেই আমার এই ঘটনা ঘটেছে।

ওই বীমা কোম্পানির অফিসে গেলে বিভিন্ন  অছিলায় আমাকে ঘোরানো হয়।এরপরেই নিউ টাউন থানা ও ভবানী ভবনের সিআইডি দফতরের অভিযোগ জমা দিই।মন্তেশ্বর থানায় আমাকে ডেকে পাঠানো হলে শনিবার আরো একটি অভিযোগ জমা দিই।

মোবাইল টাওয়ার বসানো হলে বেশ কিছু আয় আরো বাড়বে এইভেবেই টাকা দিই।আমি পলিসি করতে চাইনি।ওরা টাওয়ার বসানোর লোভ দেখিয়ে টাকা নিয়ে আমার নামে বীমা করে দিয়েছে।টাওয়ারও হয়নি টাকাও পাচ্ছি না।আমি চাই আমার মত আর কেউ যেন প্রতারিত না হয়।” দোষীদের গ্রেফতারের দাবি করেছেন চিকিৎসক।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485