ফোরামের বিকাশভবন অভিযান: আশা-নিরাশার অপেক্ষা আর কতদিন?

0
1085

নিজস্ব প্রতিবেদক, সল্টলেক:  শুরুটা হয়েছিল কয়েক হাজার জনস্রোতের আছড়ে পড়া দিয়ে। কিন্তু দিনের শেষে আবার একরাশ হতাশা মিশ্রিত আশ্বাস নিয়েই ফিরতে হলো। তারা ভেবেছিল আজ একটা হেস্তনেস্ত করেই ফিরবে। একদিকে সরকারের চরম উদাসীনতা অন‍্যদিকে আবহাওয়ার চোখ রাঙানিতে সেটা আর সম্ভব হলনা।

বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের আহ্বানে ‘মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন’ পুনর্বহালের দাবিতে বিকাশ ভবন অভিযান, মুখ্যমুন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীকে ডেপুটেশন ও বিক্ষোভ সমাবেশ সহ অভিনব গণভোটের আয়োজন করা হয় আজ ডা: বি. সি. রায় মূর্তির পাদদেশে।

চলছে গণভোট

কমিশনপ্রেমী কয়েক হাজার মানুষ প্রথমে সমবেত হয় ‘আচার্য ভবন’ অর্থাৎ স্কুল সার্ভিস কমিশন অফিসের সামনে।এই জমায়েতের বেশিরভাগ অংশই ছিল কমিশনের মাধ্যমে পাশ করে নিয়োগের অপেক্ষায় বসে থাকা চাকরি প্রার্থীরা। বাকিটা ছিলেন চাকুরী হারানোর ভয়ে ভীত, অপমানিত রাজ‍্যের স‍রকারি মাদ্রাসার শিক্ষক- শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীবৃন্দ।এই জমায়েত ডেপুটেশনের উদ্দেশ্য মিছিল করে ময়ূখ ভবনের দিকে রওনা দেয়দুপুর১টায়। বিকাশভবনের দিকে মিছিল নিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। ফোরামের রাজ্যসভাপতি ঘোষনা করেন যে যতক্ষণ না শিক্ষামন্ত্রী ডেপুটেশন গ্রহণ করবেন এবং মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের উত্তীর্ণ প্রার্থীদের নিয়োগের প্রতিশ্রুতি  দেওয়া হবে ততক্ষণ ড: বি. সি. রায় মূর্তির পাদদেশে অবস্থান বিক্ষোভ চলবে।

 

অবরোধ চলছে

বৃষ্টিতেই সাড়ে চারঘন্টা বিক্ষোভ প্রদর্শন চলার পর  ডেপুটেশন গ্রহন করা হয়। অভিনব জনমত সমীক্ষাপত্র অর্থাৎ গনভোটের ফলাফল শিক্ষামন্ত্রীর দফতরে জমাপড়ে।বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত বিশিষ্ট সাহিত্যিক মীরাতুন নাহার সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন। সভায় উপস্থিত জুট মিল ইউনিয়নের শ্রমিক নেত্রী অধ্যাপিকা শিলা চক্রবর্তীও সরকারের নিয়োগনীতির  সমালোচনা করেন।  কিন্তু সবার প্রশ্ন সুপ্রীম কোর্টের স্থগিতাদেশ থাকা স্বত্তেও সরকার নিয়োগ দিচ্ছেনা কেন?  এই দুর্বিসহ অপেক্ষা আর কতদিন?

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584