সংখ্যা নিয়ে শঙ্কা উপেক্ষিত জনস্বাস্থ্য

0
283

সংখ্যা নিয়ে শঙ্কা উপেক্ষিত জনস্বাস্থ্য

চোখ বন্ধ করলে প্রলয় থামে না – প্রাচীন এই প্রবাদ বহু ব্যবহারে জীর্ণ হলেও,সাম্প্রতিক পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পরিস্থিতিকে ব্যাখা করার জন্য এর চেয়ে উপযুক্ত শব্দবন্ধ বাংলা অভিধানে বেশ বিরল।

পশ্চিমবঙ্গে ধমক এবং চমকের শাসন যে ভাবে শাখা প্রশাখা বিস্তৃত করছে তা অনুভব করার জন্য খুব বেশী পাণ্ডিত্য যে প্রয়োজন নেই সে কথা সকলেই স্বীকার করেন।সজানো ঘটনার তত্ত্ব,দামাল ছেলেদের ছোট্ট দুষ্টুমির তত্ত্ব এবং বেতন দিই তাই যা বলবো শুনতে হবে ইত্যাদি বহুবিধ তত্ত্বের সমাবেশে আইনের শাসন প্রশাসনিক নিরপেক্ষতা আজ পাঠ্যপুস্তকের বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছে, কিন্তু সাম্প্রতিক কালে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে যা চলছে তা ‘ এই সব পেয়েছি ‘ রাজ্যের কাফিনে শেষ পেরেক নয় তো?

রাষ্ট্রবিজ্ঞান নামক রাজনীতি বিদ্যার শাস্ত্রে গণতান্ত্রিক শাসন শব্দটি ব্যখ্যা করা হয়েছে জনগনের দ্বারা,জনগনের জন্য,জনগনের শাসন বলে।কিন্তু এ রাজ্য জনগণ শব্দের পরিবর্তে যে শব্দটি সংযুক্ত হবে তা নিশ্চয় উল্লেখের দাবী রাখবে না।তিনি সাম্প্রতিক কালে ঘোষণা করেছেন যে, প্যাথলজিগুলি যাকে ডেঙ্গি বলছে তা নিতান্তই অজানা জ্বর। এর পর আর কোন বিশেষজ্ঞের বাক্যালাপ চলতে পারে কি?

ছবি-সংগৃহিত

কিন্তু পরিজনের শবদেহ আর রোগযন্ত্রণায় জর্জরিত প্রিয়জনের আর্তনাদ তত্ত্ব আর বাস্তবে ফারাক তৈরি করছে।ফলে তিনি শুধরে নিয়ে বললেন,এ রাজ্যে ডেঙ্গির জন্য দায়ী ভিন্ রাজ্যের জীবাণু। আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র উনিশ হাজার। তাঁর শাসনে ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রিত সম্পূর্ণ রূপে।এবার সংখ্যা নিয়ে শঙ্কা শুরু হল।

ছবি-ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

জনস্বাস্থ্য কল্যাণকামী রাষ্ট্রের এক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যা এ রাজ্য দীর্ঘদিন ধরে শুধু অবহেলিত তাই নয় বঞ্চিত। তারই ফল আজ অজানা জ্বর হোক বা ডেঙ্গি।কিন্তু একথা স্বীকার করে গোড়ায় গলদ ধরতে গেলে ব্যালট বাক্স ইতিবাচক না হবার সম্ভাবনা থেকে যায় ফলে – দাও ধমক। ডেঙ্গির ভয়াবহতায় স্বীকার করে নিলে জনস্বাস্থ্যের নিদারুণ ব্যর্থতা স্বমহিমায় প্রকাশিত হয়ে যাবে।ফলে চমকে দাও।পরিসংখ্যান কমিয়ে।

ডাক্তার এবং প্যাথলজি গুলি ডেঙ্গি চিহ্নিত করে কোন ডি লিট পাবে না। ফলে তারও ‘চাচা আপন প্রান বাঁচা’ তত্ত্বে চলতে চাইছে।

ছবি-কাল্পনিক

শাসকের শাসন সব সময় নির্ভুল হবে এ দাবী অযৌক্তিক। কিন্তু সেই ভুল সম্পর্কে শাসকের দৃষ্টিভঙ্গি কি সেইটি বিবেচ্য। সেই বিচারে বর্তমান পশ্চিমবঙ্গের শাসকগোষ্ঠী শুধু অণুত্তীর্ণ নয় চুড়ান্তভাবে ব্যর্থ।নাগরিক জীবন অপেক্ষা শাসনের দোষ ঢাকার তাগিদ যদি বেশী হয়ে যায় তবে তার ভয়াবহতা কি মারাত্মক হতে পারে তা রাজনীতি এবং প্রশাসনিক ব্যবস্থায় এ রাজ্যের জনগণ প্রত্যহ উপলব্ধি করছে এবার জনস্বাস্থ্যেও তার প্রভাব পড়বে এবং তা আরও মারাত্মক মহামারীর জন্ম দেবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here