মেদিনীপুরে আন্তর্জাতিক উরুশ উৎসব বিষয়ে উদ্যোক্তা-প্রশাসন বৈঠক

0
5

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ

অন্যান্য বছরের ন্যায় এবারও ফেব্রুয়ারি মাসেই মেদিনীপুর শহরে আয়োজিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক উরুশ উৎসব। যেখানে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন প্রতিবেশী দেশ থেকে পুণ্যার্থীরা হাজির হবেন। তবে এবার পরিস্থিতি খানিকটা আলাদা হওয়ায় উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা।

international urshi festival meeting in midnapur | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

আগামী ১৭ ই ফেব্রুয়ারি মেদিনীপুর শহরের মিয়াবাজার এলাকাতে আয়োজিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক উরুশ উৎসব। ইতিমধ্যেই সেই উৎসবের আগে মেলার সাজে সজ্জিত হতে শুরু করেছে মিয়াবাজার। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দোকানদার ও পুণ্যার্থীরা সমবেত হয়ে গিয়েছেন।

তবে প্রধান উৎসবটি শুরু হবে ১৭ ই ফেব্রুয়ারি। তার আগেই প্রশাসনিক বৈঠকে ডাকা হলো উদ্যোক্তাদের। অন্যান্য বারের তুলনায় এবার উরুশ উৎসবের উদ্যোক্তাদের খানিকটা চিন্তার কারণ রয়েছে। এনআরসি সহ বিদেশী মুসলিমদের ভারতবর্ষে প্রবেশের ক্ষেত্রে অনেক বেশি কড়াকড়ি শুরু হয়েছে‌।

international urshi festival meeting in midnapur | newsfront.co
নিজস্ব চিত্র

আরও পড়ুনঃ কালিয়াগঞ্জে দিবারাত্রি ভলিবল প্রতিযোগিতার চাম্পিয়ন গোরক্ষপুর একাদশ

তাই বৈধ পাসপোর্ট ভিসা থাকলেও সকলেই যে সহজে উপস্থিত হতে পারবেন তার সংশয় রয়েছে। ১৭ ই ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের উরুষ স্পেশাল ট্রেনে করে আড়াই হাজারের বেশি পুণ্যার্থী মেদিনীপুর শহরে উপস্থিত হওয়ার কথা।

এছাড়াও বাংলাদেশীদের পুণ্যার্থী হিসাবে উপস্থিতি এবং তাদের চলে যাওয়ার ক্ষেত্রে পুরো বিষয়টি এবারে একটু কড়া নজরে দেখার উদ্যোগ রয়েছে প্রশাসনের। তাই সে বিষয়ে উদ্যোক্তাদের সঙ্গে কথা বলার জন্য বৈঠকের আয়োজন হয় সোমবার দুপুরে।

মেদিনীপুর শহরের মেদিনীপুর পুরসভা হলে এই বৈঠক হয়। মেদিনীপুর টাউন মুসলিম কমিটির সম্পাদক ওয়াহেদ আলী জানান- “অবৈধতার কিছু নেই, তাহলেও বৈধ পাসপোর্ট ভিসা নিয়ে সহজে যে প্রবেশ করতে পারবে এই উৎসবে তা নিয়ে খানিকটা চিন্তিত অনেকেই। তাই প্রশাসনের সঙ্গে আমরা কথা বলি পরিস্থিতি জানার চেষ্টা করছি।”

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485