রণক্ষেত্র মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

0
406

নিজস্ব প্রতিবেদক, মুর্শিদাবাদ:

গতকাল রাত এগারোটা নাগাদ স্থানীয় এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।কালিতলাদিয়ার গ্ৰামের দিলীপ মন্ডলের মৃত্যুর পর রোগীর বাড়ির লোকজন প্রথমে কর্মরত ইনটার্নদের উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ হাসপাতাল কতৃপক্ষের।

অপরদিকে অভিযোগ উঠেছে ইনটার্নদের উপরেও।তারা নাকি খবর দেয় হোস্টেলে।খবর পেয়ে হোস্টেলের জুনিয়র ডাক্তাররাও আক্রমণ করে রোগীর বাড়ির লোকজনকে। মাঝখানে পড়ে যায় সাংবাদিকরা। অভিযোগ হাসপাতালে ছবি তুলতে যাওয়া রণজিৎ মাহাত(চিত্র সাংবাদিক ২৪ ঘন্টা), হারেজ রতন সরকার (চিত্র সাংবাদিক মন্তাজ খবর),আশীষ বাগচি(চিত্র সাংবাদিক এবিপি আনন্দ) ও রাণা ইসলাম(চিত্র সাংবাদিক ২৪ ঘন্টা) এর উপর প্রায় একশো মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র ও জুনিয়ার ডাক্তাররা চড়াও হয় ও মারধোর করে তিনটে অ্যানড্রয়েড ফোন ছিনিয়ে নেয়।আহত সাংবাদিকদের মধ্যে রণজিৎ মাহাতোর মাথার আঘাত গুরুতর।

আহত সাংবাদিক।

সে বহরমপুরে একটি বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রণজিতের এই আঘাত আরও উদ্বেগ বাড়িয়েছে কারণ আগেও বছর তিনেক আগে বহরমপুর কলেজে ছাত্র সংঘর্ষের ছবি তুলতে গিয়ে রণজিত মাথায় আঘাত পেয়েছিল।

জুনিয়ার ডাক্তারদের অভিযোগ সাংবাদিকরা নিয়ম ভেঙ্গে রাত্রি 11 টায় ওয়ার্ডে ঢোকে যখন রোগীর আত্মীয়রা উইকেট নিয়ে জুনিয়ার ডাক্তারদের উপর চড়াও হয়েছে- পুলিশী নিষ্ক্রিয়তা এবং সাংবাদিকদের অতিসক্রিয়তা এই গন্ডগোলকে ভয়াবহতায় রূপ দেয়।

তবে প্রশ্ন উঠছে হবু ডাক্তার ভূমিকা নিয়েও। কারণ রাজ‍্যব‍্যাপি তাদের হাঙ্গামা আজ বহু চর্চিত।

যাইহোক ঘটনার আকস্মিকতায় স্তম্ভিত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ও তাদের বাড়ির লোকজন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here