পুনর্বাসন ঘিরে অগ্নিগর্ভ ত্রিপুরা, পুলিশের গুলিতে নিহত ১

0
11

নিজস্ব সংবাদদাতা, ওয়েব ডেস্কঃ

উত্তর ত্রিপুরায় ব্রু উপজাতির পুনর্বাসন ঘিরে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে পানিসাগর এলাকা। অবরুদ্ধ পানিসাগরে জাতীয় সড়কে অবরোধকারীদের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় একজনের, আহত আরও ২০ জন। আহতদের তালিকায় রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দা, ত্রিপুরা পুলিশ, দমকলের কর্মীরা।

North Tripura | newsfront.co
বিক্ষোভে জ্বলছে গাড়ি

১৯৯৭ সালে মিজোরাম লাগোয়া মমিট, কোলাসিব, লুঙ্গলেই জেলায় পালিয়ে আসেন ৩২ হাজারেরও বেশি ব্রু উপজাতিভুক্ত মানুষ। ত্রিপুরা সরকার, মিজোরাম, কেন্দ্র সরকার ও ব্রু পরিযায়ীদের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী তাঁদের ত্রিপুরায় পুনর্বাসনের এই পুনর্বাসনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, সেই অনুযায়ী পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হচ্ছিল।

নাগরিক সুরক্ষা মঞ্চ ও মিজো কনভেনশনের মতো কয়েকটি সংগঠন কাঞ্চনপুরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বনধ ডেকেছে এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে। এদিন সকালে পানিসাগরে ৮ নং জাতীয় সড়কে এরকমই বেশ কয়েকজন প্রতিবাদী জমায়েত হয়ে সকালে পথ অবরোধ শুরু করেন পুনর্বাসন ফর্মুলা বাতিল করার দাবিতে।

আরও পড়ুনঃ শতবর্ষ আগে চুরি যাওয়া অন্নপূর্ণা বিগ্রহ দেশে ফেরাচ্ছে কানাডা

অবরোধ ঘিরে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে এলাকা। পুলিশ প্রথমে বিক্ষোভকারীদের উপর লাঠিচার্জ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে না পেরে এর পর গুলি চালায় পুলিশ। পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় শ্রীকান্ত দাস নামে বছর চল্লিশের এক ব্যক্তির।

আরও পড়ুনঃ বিহার নির্বাচনের পূর্বে ২৮২ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড ইস্যু করেছে এসবিআই

অতিরিক্ত ডিজিপি রাজীব সিং দাবি করেন আত্মরক্ষার্থে বাধ্য হয়ে গুলি চালিয়েছে পুলিশ। তিনি বলেন, উত্তেজিত জনতা নিরাপত্তা কর্মীদের থেকে অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে বাধ্য হয়ে গুলি চালায় পুলিশ। তিনি জানিয়েছেন, এদিনের ঘটনায় একজনের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন অন্তত ৯ জন ত্রিপুরা পুলিশ ও দমকলের কর্মী। তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485