কোচবিহারে অব্যাহত ভোট পরবর্তী হিংসা,আহত ১

0
26

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ

the Jealousy in election at cooch behar
চিকিৎসাধীন আহত।নিজস্ব চিত্র

এক বিজেপি কর্মীকে মারধর করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত তুফানগঞ্জ পুরসভার ভাইস চেয়ারপার্সনের ছেলের বিরুদ্ধে।

the Jealousy in election at cooch behar
নিজস্ব চিত্র

ঘটনাটি ঘটেছে তুফানগঞ্জ থানার অন্তর্গত নেতাজী হাই স্কুল সংলগ্ন বীণাপাণি ক্লাব রোডে।ওই ঘটনায় আহত বিজেপি কর্মীকে উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেন।ওই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ।পরে ওই ঘটনায় আক্রান্ত বিজেপি কর্মীর পরিবারের পক্ষ থেকে তুফানগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,আক্রান্ত ওই ব্যক্তির নাম প্রশান্ত সাহা।তিনি একজন বস্ত্র ব্যবসায়ী।জানা গেছে, বুধবার রাত ১০টা নাগাদ তিনি মোটর সাইকেল চেপে বাড়ি ফিরছিলেন।সেই সময় নেতাজী হাই স্কুল সংলগ্ন বীণাপাণি ক্লাব রোডের সামন দিয়ে যাওয়ার সময় তুফানগঞ্জ পুরসভার ভাইস চেয়ারপারসন ছেলে ও তার দলবল তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

আরও পড়ুনঃ ভোট পরবর্তী হিংসা,চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে

তারপর মোটর সাইকেল দাঁড় করিয়ে তাকে মারধোর করে এবং চশমা ও হেলমেট ভেঙ্গে দেয় বলে অভিযোগ।তারপর স্থানীয় লোকজন চিৎকার শুনে ছুটে এসে আহত অবস্থায় ওই বিজেপি কর্মীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।বর্তমানে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত ভাইস চেয়ারপার্সনের ছেলে দেবাঞ্জন দের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আক্রান্ত ওই বিজেপি কর্মী প্রশান্ত সাহা হাসপাতালের বেডে শুয়ে বলেন,এদিন রাত প্রায় সাড়ে ১০টা নাগাদ মোটর সাইকেলে চেপে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিলাম। ঠিক সেই সময় নেতাজী হাই স্কুল সংলগ্ন বীনাপানি ক্লাবের পাশ দিয়ে যাবার পথে তাকে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজ করে বেশ কয়েকজন।সেই সময় আমি মোটর সাইকেলটি দাঁড় করালে,তারা আমাকে ব্যাপক মারধোর করা হয় এবং আমার চশমা,হেলমেট ও মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করা হয়।এমতাবস্থায় আমার চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে এসে আমাকে উদ্ধার করে তুফানগঞ্জ হসপাতালে ভর্তি করে।

এ বিষয়ে বিজেপির কোচবিহার জেলা সভাপতি মালতি রাভা বলেন,নির্বাচনে তৃণমূল হারবে জেনে কোচবিহার জেলা জুড়ে সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করছে।যেখানে সেখানে বিজেপি কর্মীদের তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা মারধোর করছে।আমরা দলের পক্ষ থেকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি।এই বিষয়ে তুফানগঞ্জ থানায় দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হবে।

তুফানগঞ্জ পুরসভার ভাইস চেয়ারপার্সনের নন্দা দে অবশ্য বিজেপির তোলা এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন।তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন।মোটর বাইক নিয়ে পড়ে গিয়ে আহত হন তিনি। এখন বিজেপি বিষয়টিকে নিয়ে রাজনৈতিক রং মাখানোর চেষ্টা করছে। আমার ছেলের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91-9593666485