টোটো সমস্যা মেটাতে বৈঠক প্রশাসনের

0
48

সুদীপ পাল, বর্ধমানঃ

বর্ধমান শহর তথা পূর্ব বর্ধমান জেলার টোটো এবং ই-রিক্সা নিয়ে বিভিন্ন সমস্যা মেটাতে বর্ধমান জেলাশাসক, পুলিশ সুপার-সহ বিভিন্ন দফতরের আধিকারিকদের নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হল আজ।

the meeting with administration for toto problem | newsfront. co
নিজস্ব চিত্র

তাতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, টোটো বা ই-রিক্সা যে কেউ চালাতে পারবেন না, যাঁর গাড়ি তাঁকেই চালাতে হবে, অর্থাৎ ই-রিক্সা কিনে কেউ ভাড়া খাটাতে পারবেন না। এমনকি গাড়ি চালানো যাবে না, যখন খুশি যে কোনও রুটে।

ই-রিক্সা বা টোটোর রেজিস্ট্রেশন এর সাথে চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, এ দিনের বৈঠকে তিনটি রিক্সা সংগঠনের প্রতিনিধি ছিলেন। বর্ধমান শহরের প্রায় ১৫ হাজার ই-রিক্সা চলাচল করে। একটি নির্দিষ্ট নিয়মে আনার জন্যই এই বৈঠকের উদ্যোগ বলে জানা যায়।

আরও পড়ুনঃ ভারত পেট্রোলিয়াম বিলগ্নিকরণের প্রতিবাদে ধর্মঘট

কোন রুটে চালক টোটো চালাতে চান তার লিখিতভাবে আবেদন জানাতে হবে। বাড়ির ঠিকানা দেখে কাছাকাছি রুট দেওয়া হবে। একই সাথে ঘোষণা করা হয়েছে গাড়ি রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং চালকের লাইসেন্স এক ব্যক্তির নামে হলে তবেই টোটো চালানো যাবে। না হলে অভিযানের সময় যদি তা না মিললে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বর্ধমান শহরের খোসবাগান, বর্ধমান মেডিকেল কলেজ-সহ বেশ কিছু জনবহুল রাস্তায় টোটো নিয়ন্ত্রণ করা হবে। একই সাথে যেখানে-সেখানে টোটো দাঁড় করানো যাবে না বলেও ঠিক হয়। বর্ধমানের বাসিন্দারা মনে করছেন, এই বৈঠকের পর টোটো চলাচলে নিয়ন্ত্রণ থাকবে এবং দুর্ঘটনার হাত থেকে শহরবাসী রক্ষা পাবে।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here