দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের এক মানবিক প্রয়াস

0
16

নিজস্ব সংবাদদাতা,কুলটিকরি,ঝাড়গ্রামঃ

ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল ব্লকের কুলটিকরী তে অবস্থিত আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা  লোধা- শবর এবং সংখ্যালঘু ছেলে মেয়ে দের নিয়ে গঠিত  “বিদ্যাসাগর শিক্ষা সহায়তা কেন্দ্র” এর সাহায্যার্থে এগিয়ে এলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়্গপুরের নিমপুরা এলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “সান্ধ্য সঙ্গী ও সৃষ্টি” এবং মেদিনীপুর শহরের সম্পূর্ণ মহিলাদের দ্বারা পরিচালিত   স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “অদ্বিতীয়া”। শনিবার এই দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে এখানকার আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা ৬০ জন পড়ুয়াদের হতে স্কুলের পোশাক, দুটি হোয়াইট বোর্ড, কলম, চক,ডাস্টার ও টিফিন তুলে দেওয়া হয়। কর্মসূচির শুরুতে সবাইকে স্বাগত জানান শিক্ষা সহায়তা কেন্দ্রের সভাপতি সর্বেশ্বর মহাপাত্র। উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করেন কুলটিকরীর স্বরলিপি সঙ্গীত একাডেমীর ছাত্রী অনিতা প্রধান ও সুনীতা প্রধান। “সান্ধ্যসঙ্গী ও সৃষ্টি” -র পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার দুই কর্ণধার  সুজিত ঘোষাল ও তাঁর সহধর্মিণী ঝর্না ঘোষাল, সদস্য উমাশংকর ভৌমিক, দেবাশীষ আচার্য্য প্রমুখ।

নিজস্ব চিত্র 

অন্যদিকে অদ্বিতীয়া” র পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সভাপতি  পাঞ্চালী চক্রবর্তী,সদস্যা  মৃদুলা ভূইঞা, মানোয়ারা বেগম, চৈতালী চক্রবর্তী,রুমা কর প্রমুখ। পাশাপাশি এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত সাঁকরাইল ব্লকের  সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক রথীন বিশ্বাস, সাঁকরাইল থানার খোন্দকার সাইফুদ্দিন আহমেদ, ঝাড়গ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান  জয়দীপ হোতা,বিশিষ্ট সমাজসেবী  কমল কান্ত রাউত, লোধা শবর সমাজের কর্মকর্তা,বলাই নায়েক,মহাশ্বেতা দেবী ক্লাব ভবনের সম্পাদক রঞ্জিত কুমার দাস, বঙ্গীয় সাক্ষরতা প্রসার  সমিতির  কার্যকরী সভাপতি নভেন্দু হোতা, সময় বাংলার  জয়ন্ত মন্ডল, বিশিষ্ট শিক্ষক নরসিংহ দাস,বি সি ডব্লিউ ইন্সপেক্টর হিন্দোল পড়িয়া, সমাজসেবী রমেন দাস ,গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সুষমা পাতর, উপপ্রধান আশীষ দাস প্রমুখ।

আরও পড়ুনঃ শিলদা কলেজে সচেতনতা শিবির

যাঁর অক্লান্তিক প্রচেষ্টায় এদিনের কর্মসূচি সাফল্য মন্ডিত হয় তিনি হলেন কুলটিকরী হাইস্কুলের প্রাক্তন শিক্ষক ও ” বিদ্যাসাগর শিক্ষা সহায়তা কেন্দ্রের” সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাব্রতী  সর্বেশস্বর মহাপাত্র।পোশাক এবং শিক্ষা সামগ্রী পেয়ে শিক্ষা কেন্দ্রের পড়ুয়ারা সবাই খুব খুশি। উপস্থিত অতিথিগণ প্রত্যেকে এই দুই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের  ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং আরও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলো যাতে এই ধরনের কাজে এগিয়ে আসে তার আহ্বান জানান।সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সঙ্গীত শিল্পী প্রদীপ কুমার মাইতি, শিক্ষাব্রতী মিঠুন বারিক ও সমাজকর্মী শিক্ষক সুব্রত মহাপাত্র ।

নিউজফ্রন্ট এর ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন
WhatsApp এ নিউজ পেতে জয়েন করুন আমাদের WhatsApp গ্রুপে
আপনার মতামত বা নিউজ পাঠান এই নম্বরে : +91 94745 60584

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here